এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > করোনা জুজু উড়িয়ে হেভিওয়েট তৃণমূল নেতার দেড়শো গাড়ির কনভয় নিয়ে মহকুমা জুড়ে পুজো পরিক্রমা!

করোনা জুজু উড়িয়ে হেভিওয়েট তৃণমূল নেতার দেড়শো গাড়ির কনভয় নিয়ে মহকুমা জুড়ে পুজো পরিক্রমা!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – গতকাল মহা ষষ্ঠীর বিকেলে প্রায় দেড়শো গাড়ির কনভয় নিয়ে দক্ষিন দিনাজপুর জেলার বালুরঘাট মহকুমা জুড়ে পুজো পরিক্রমা করলেন তৃণমূল নেতা বিপ্লব মিত্র। বালুরঘাট শহরের একাধিক বড় বড় পুজো পরিদর্শন করলেন তিনি। করোনা সংক্রমণ কালে এই ধরণের পুজো পরিক্রমা ও জনসংযোগ কতটা যুক্তিযুক্ত তা নিয়ে বিতর্ক ছড়ালো। অন্যদিকে গতকাল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ভার্চুয়াল পুজো উদ্বোধন নিয়েও বিতর্ক ছাড়ালো।

গতকাল সকালে প্রধানমন্ত্রী বালুরঘাট শহরের বেলতলাপার্ক নিউটাউন ক্লাবের পূজার উদ্বোধন করেছিলেন। এই সময় বহু মানুষ প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধন দেখতে ভিড় জমান কোনরকম স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই। প্রসঙ্গত গতকাল বিকেলে নিজের অনুগামীদের নিয়ে প্রায় ১৫০টি গাড়ির কনভয় নিয়ে গোটা বালুরঘাট মহাকুমার সমস্ত পুজো পরিক্রমা করলেন তৃণমূল নেতা বিপ্লব মিত্র। গঙ্গারামপুর, কুমারগঞ্জ বালুরঘাট শহরের সমস্ত বিখ্যাত ক্লাবের প্রতিমা দর্শন করলেন তিনি।

বিভিন্ন স্থানে পৌঁছে বিভিন্ন ক্লাবের কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করলেন তিনি। গতকাল তাঁর সঙ্গে দেখা করেছিলেন মফিজুদ্দিন মিঞা, কল্যাণ কুণ্ডু, আশু সাহা, রাজেন শীল প্রমুখ তৃণমূল নেতারা। করোনা কালে এভাবে তৃণমূল নেতার পুজো পরিক্রমা কত কতটা যুক্তিযুক্ত তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে বিভিন্ন পক্ষ থেকে। যেখানে জনসমাগম না করবার নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন, হাইকোর্ট নির্দেশ দিয়েছে অনুষ্ঠান সংক্ষিপ্ত করার, সেখানে তৃণমূল নেতার এই পুজো পরিক্রমা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

এ প্রসঙ্গে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা তৃণমূল সভাপতি গৌতম দাস জানিয়েছেন, ” করোনার কথা ভেবে দলের তরফে এমন কোনও কর্মসূচি আমরা রাখিনি। দলের দায়িত্ববান নেতা কেউ হলে তিনি হাইকোর্টের নির্দেশ অমান্য করে লোকজন নিয়ে ভিড় করে পুজো পরিক্রমা করতেন না।” তবে এ প্রসঙ্গে তৃণমূল নেতা বিপ্লব মিত্রের বক্তব্য, সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনেই তিনি পূজা পরিক্রমা ও জনসংযোগ করেছেন। তাই এর মধ্যে তিনি নিজের কোন ভুল দেখতে পাচ্ছেন না।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে, গতকাল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সকালবেলায় বালুরঘাট শহরের বেলতলা পার্ক নিউ টাউন ক্লাবের দুর্গা পূজার উদ্বোধন করলেন। এ সময় ওই ক্লারের সামনে বসানো জায়ান্ট স্ক্রিনের সামনে দাঁড়িয়ে প্রধানমন্ত্রীর পূজার উদ্বোধন দেখেছেন ও তাঁর বক্তব্য শুনেছেন অসংখ্য মানুষ। অভিযোগ উঠেছে, কোনোরকম সামাজিক দূরত্ব না মেনেই সে স্থলে উপস্থিত হয়েছিলেন বহু মানুষ। তাদের মধ্যে অনেকে মাস্ক পর্যন্ত পড়েন নি। অনেকের মাস্ক নামানো ছিল চোয়ালের নিচে।

তবে ক্লাবের কর্মকর্তারা দাবি করেছেন যে, সমস্ত রকম স্বাস্থ্যবিধি মেনেই উদ্বোধন অনুষ্ঠান সম্পন্ন করা হয়েছে। এই ক্লাবের পুজো উদ্যোক্তাদের অন্যতম অরিজিৎ মোহান্ত জানিয়েছেন, “সামাজিক দূরত্ব মেনেই ওই অনুষ্ঠান হয়েছে।” প্রসঙ্গত, গত কাল এগারোটার সময় দিল্লি থেকে প্রধানমন্ত্রী পশ্চিমবঙ্গের বেশ কিছু ক্লাবের দুর্গা পুজোর উদ্বোধন করেছিলেন। পশ্চিমবঙ্গ বাসীকে তিনি দুর্গাপুজো, কালীপুজো, দীপাবলির শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

গতকাল মালদহ জেলার ১২ টি বিধানসভা এলাকায় প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা বার্তা দেখানোর ব্যবস্থা বিজেপির পক্ষ থেকে করা হয়। মালদহ জেলা বিজেপির মূল কার্যালয়ে মূল অনুষ্ঠান দেখানোর ব্যবস্থা করা হয়। সেখানে সামাজিক দূরত্ব মেনে ৫০ টি চেয়ার পাতা হয়েছিল। গতকাল সেখানে উপস্থিত ছিলেন উত্তর মালদহের সাংসদ খগেন মুর্মু, বিজেপির রাজ্য নেতা বিশ্বপ্রিয় রায়চৌধুরী, বিজেপির মালদহ
জেলা সভাপতি গোবিন্দচন্দ্র মণ্ডল প্রমুখেরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!