এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > শুরু থেকেই রাজ্যের করোনা যোদ্ধাদের মধ্যে অন্যতম হিসেবে কাজ করে চলেছেন রাজ্যের পুলিশকর্মীরা

শুরু থেকেই রাজ্যের করোনা যোদ্ধাদের মধ্যে অন্যতম হিসেবে কাজ করে চলেছেন রাজ্যের পুলিশকর্মীরা



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – যথারীতি এই পুলিশ কর্মীদের মধ্যে অনেকেই বর্তমানে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। ইতিমধ্যে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ পদাধিকারীর মৃত্যু হতেও দেখা গেছে। সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রশাসনিক বৈঠকে নির্দেশ দিয়েছিলেন, ব্যারাকে পুলিশকর্মীদের একসাথে না রেখে আলাদা ব্যবস্থা করার জন্য। অন্যদিকে রাজ্যে করোনা হাসপাতালগুলিতে শয্যা সংখ্যা কমে যাওয়ায় ভর্তি হতে বিভিন্ন সমস্যা হচ্ছে। আর তাই এবার জেলায় জেলায় পুলিশ কর্মীদের জন্য সেফ হোম এর ব্যবস্থা হচ্ছে রাজ্য সরকারের উদ্যোগে।

সূত্রের খবর, এই সেফ হোমে পুলিশ কর্মীদের জন্য সমস্ত রকম ব্যবস্থা থাকবে। বুধবার রাজ্য ডিজি সমস্ত আধিকারিকদের সঙ্গে একটি ভিডিও বৈঠক করেন এবং সেখানেই সেফ হোম গড়ে তোলার নির্দেশ দেওয়া হয় বলে জানা গিয়েছে। জেলায় জেলায় এই সেফ হোম গড়ে তোলা হবে। রাজ্য পুলিশের বহু কর্মী বর্তমানে বাড়ি থেকে বহুদূরে ডিউটি করেন। সেই সূত্রে তাঁদের ব্যারাকে থাকতে হয়। কিন্তু একসঙ্গে অনেক পুলিশকর্মী ব্যারাকে থাকার জন্য করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়তে পারে দ্রুত।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

সেই আশঙ্কায় এবার আক্রান্তদের সেলফ কোয়ারেন্টাইনে রাখার জন্য সেফ হোম গড়ে তোলা হচ্ছে জেলায় জেলায়। সেফ হোম মূলত তাঁদের জন্য, যাদের বাড়িতে জায়গার অপ্রতুলতার জন্য কোয়ারেন্টাইন মেনে চলা সম্ভব নয়। জানা গেছে, এই সেফ হোমে চিকিৎসা ব্যবস্থা থেকে শুরু করে খাওয়া-দাওয়া সব কিছুর ব্যবস্থা থাকবে। আপাতত জেলায় জেলায় রাজ্য পুলিশের প্রয়োজনে সেফ হোম গড়ে তোলার জন্য স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে কথাবার্তা চলছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, দীর্ঘদিন ধরেই রাজ্য পুলিশের ব্যারাকে সরকারের বিরুদ্ধে ক্রমাগত ক্ষোভ জমা হচ্ছিল। এই নিয়ে বিক্ষোভ কর্মসূচিও চালায় তাঁরা। সেদিক থেকে মুখ্যমন্ত্রী সেফ হোম গড়ে তোলার নির্দেশ দিয়ে তাঁদের মন পাওয়ার চেষ্টা করলেন বলে মনে করা হচ্ছে। অন্যদিকে, সেফ হোমে থাকলেও সেখানে যে কতটা নিরাপত্তা থাকছে করোনা সম্পর্কিত তা নিয়েও কিন্তু প্রশ্ন কম নয়।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!