এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > নির্দেশ সত্ত্বেও রাজ্যে খোলা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, বিতর্ক তুঙ্গে!

নির্দেশ সত্ত্বেও রাজ্যে খোলা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, বিতর্ক তুঙ্গে!



করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতার জন্য ইতিমধ্যেই আগেভাগে সবরকম প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। বেশি জমায়েত যাতে কোনো জায়গায় না হয়, তার জন্য ইতিমধ্যেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে ছুটি দিয়ে দেওয়া হয়েছে। 31 মার্চ পর্যন্ত ছুটি থাকলেও, গতকাল নবান্নে বৈঠক করে আগামী 15 এপ্রিল পর্যন্ত সেই ছুটি বহাল থাকবে বলে জানিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আর এই পরিস্থিতিতে যখন সরকারের পক্ষ থেকে বাড়তি সতর্কতা নেওয়া হচ্ছে, ঠিক তখনই পলিটেকনিক এবং আইটিআইগুলোর ক্ষেত্রে দেখা গেল ভিন্ন ছবি। সূত্রের খবর, রাজ্যের কারিগরি শিক্ষা দপ্তরের পক্ষ থেকে যে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে, সেখানে শুধুমাত্র ক্লাস না হওয়ার কথা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। যার ফলে এখনও পর্যন্ত খোলা রয়েছে, রাজ্যের অনেক পলিটেকনিক এবং আইটিআই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। কেন মুখ্যমন্ত্রী কড়া নির্দেশের পরেও খোলা রয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান?

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এদিন এই বিষয়ে দফতরের অধিকর্তা শৈবাল মুখোপাধ্যায় বলেন, “সংবাদমাধ্যমের জেনে আমি কিছু করতে পারব না। লিখিত কোনো নির্দেশ এলে তা মানব।” অনেকেই প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন, যেখানে স্কুলশিক্ষা এবং উচ্চশিক্ষা দপ্তর ছুটির বিজ্ঞপ্তি জারি করে দিয়েছে, সেখানে কারিগরি শিক্ষা দপ্তর এই বিষয়টিতে উদাসীন মনোভাব দেখাচ্ছে কেন ! দফতরের আধিকারিকরা এই ব্যাপারে কোনো উত্তর দিতে না পারলেও, গুঞ্জন কিন্তু থামছে না।

একাংশের দাবি, দপ্তরের কোনো কর্তার ভুলের জন্যই এই ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু কারিগরি শিক্ষা দপ্তরের এই উদাসীনতা যদি চলতে থাকে, তাহলে রাজ্য সরকারের নির্দেশ যেমন ভঙ্গ হবে, ঠিক তেমনই আতঙ্ক আরও বাড়বে বলেই মনে করছে একাংশ। এখন সরকারের এই নির্দেশের পরেও কবে কারিগরি শিক্ষা দপ্তর পুরোপুরি বন্ধ করে দেয় তাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো, তার দিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!