এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > বামফ্রন্ট > করোনা আবহে ক্রমশ ভেসে উঠছে বামেরা! শ্রমজীবী ক্যান্টিনের পর এবার সাধারণের জন্য সস্তায় চিকিৎসা

করোনা আবহে ক্রমশ ভেসে উঠছে বামেরা! শ্রমজীবী ক্যান্টিনের পর এবার সাধারণের জন্য সস্তায় চিকিৎসা



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – “তাদের দল সর্বহারাদের জন্য” একথা বারবার ফলাও করে প্রচার করেছে বামেরা। কিন্তু বাস্তবিক অর্থে 2011 সালে ক্ষমতা থেকে বিদায় নেওয়ার পর যত দিন যাচ্ছে, ততই মানুষের চক্ষুশূল হয়েছে তারা। এক্ষেত্রে ভোটব্যাংকে তাদের ক্রমশ অস্তিত্ব হারানোর ঘটনাতেই তা প্রমাণিত হচ্ছে বলে দাবি করেছিল রাজনৈতিক মহল। তবে বিপদের সময় অর্থাৎ লকডাউনের মুহূর্তে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে এখন বামেরা ক্রমশ রাজ্য রাজনীতি পাদপ্রদীপে উঠে আসতে চলেছে বলে মনে করা হচ্ছে।

ইতিমধ্যেই শ্রমজীবী ক্যান্টিনের মধ্যে দিয়ে মানবসেবায় বামেদের ছাত্র যুব সংগঠন নিয়োজিত হয়েছে। যাকে স্বাগত জানাচ্ছেন সকলেই। আর এবার চিকিৎসা ব্যবস্থার মধ্যে দিয়ে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়াতে উদ্যোগী হলো বামফ্রন্ট। জানা গেছে, বাম মনোভাবাপন্ন চিকিৎসকদের উদ্যোগে পয়লা সেপ্টেম্বর থেকে নতুন উদ্যোগে ভাবে জনস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কাজ শুরু করছে বামেরা। এদিন এই কেন্দ্রের সূচনা করেন ফুয়াদ হালিম। জানা গেছে, লকডাউনের মুহূর্তে মাত্র 50 টাকায় ডায়ালিসিস করে ইতিমধ্যেই গোটা রাজ্যে সাড়া ফেলে দিয়েছেন তিনি। আর এবার চিকিৎসা ব্যবস্থার মধ্যে দিয়ে এই বিশিষ্ট চিকিৎসক মানুষের পাশে দাঁড়াতে শুরু করেছেন।

কিন্তু এই জনস্বাস্থ্য কেন্দ্রের বিশেষত্ব কি? এখানে মানুষ কিভাবে সুবিধা পাবে? জানা গেছে, লকডাউনের মুহূর্তে যখন মানুষের রুজি-রুটির কার্যত সংশয়ের মুখে, তখন এই কর্মসূচির মধ্য দিয়ে মাত্র 50 টাকার বিনিময়ে সাধারণ মানুষ ডাক্তার দেখিয়ে নিতে পারবেন। তবে সাধারণ অসুখ অর্থাৎ পেট ব্যথা, জ্বর-কাশির ক্ষেত্রে কোনোরূপ টাকা নেওয়া হবে না বলে জানানো হয়েছে। বামেদের পক্ষ থেকে শ্রমজীবী ক্যান্টিনের মাধ্যমে মানুষকে বিনামূল্যে অন্ন জোগাড়ের পর এবার যেভাবে বিনামূল্যে বা স্বল্প খরচে চিকিৎসা দেওয়ার কথা জানানো হল, তাতে বাম শিবিরের মানুষের পাশে দাঁড়ানোয় আগামী দিনে তাদের ভাবমূর্তিকে অনেকটাই উজ্জ্বল করবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

একাংশের মতে, গত লোকসভা নির্বাচনে সিপিএমের অস্তিত্ব রাজ্যে সম্পূর্ণরূপে ক্ষুন্ন হয়েছে। আগামীদিনে বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্যেই মূল লড়াই হবে বলে ধরে নেওয়া হচ্ছে। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে সিপিএম যদি এইরকম মানবিক কর্মসূচির মধ্য দিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়াতে শুরু করে, তাহলে তারা বিকল্প হিসেবে উঠে আসতে পারে রাজ্য রাজনীতিতে।

কেননা বর্তমানে সংকটজনক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে‌। মানুষ এই সময় রাজনীতি না দেখে কোন দল তাদের পাশে সবথেকে বেশি দাঁড়াচ্ছে, সেই দিকেই নজর রাখছে।আগামী বিধানসভা নির্বাচনে এই গোটা বিষয়ের প্রতিফলন ভোটব্যাংকে পড়বে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। সেদিক থেকে সিপিএমের একের পর এক মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে এই কর্মসূচি তাদের অনেকটাই অক্সিজেন যোগাবে বলে আশা বাম শিবিরের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!