এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > করোনা আবহে সতেজ রাখতেই হবে নিজের ফুসফুসকে! খুব সহজেই কিভাবে করবেন, শুনুন বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ

করোনা আবহে সতেজ রাখতেই হবে নিজের ফুসফুসকে! খুব সহজেই কিভাবে করবেন, শুনুন বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – করোনা ভাইরাসের প্রকোপ থেকে কিছুতেই পাওয়া যাচ্ছে না মুক্তি। প্রতিদিন নতুন করে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা।তবে করোনা আবহের শুরুতেই রোগ প্রতিরোধে সচেতনতা তৈরি করতে নির্দিষ্ট কিছু নিয়ম এনেছিল হু। সেই নিয়মগুলো এর মধ্যে অন্যতম আবশ্যক নিয়মটি হলো আপনার ফুসফুসের যত্ন। কারণ করোনা ভাইরাসের মারাত্মক আক্রমণ আসে ফুসফুসের ওপর। ফলে আপনার ফুসফুসটি যদি দুর্বল হয়, তবে আপনার আক্রান্ত হওয়ায় মাত্রাও অনেকখানি বেড়ে যায়।

এই পরিস্থিতিতে তাই সব মানুষই স্বাস্থ্যসচেতন হয়ে পড়েছেন। তবে এর মধ্যেও যাদের সুগার প্রেশার, হাঁপানি প্রভৃতি আছে, তাদের ফুসফুস, হার্ট এমনিতেই হয় কিছুটা দুর্বল। তাই ফুসফুসকে সুস্থ রাখতে আপনার প্রতিদিনের খাবার আর ব্যায়ামের সঙ্গে মেনে চলতে হবে কোন উপায়গুলি, আসুন জেনে নিন

প্রতিদিন জোরে হাঁটলে ফুসফুসে রক্ত সঞ্চালন ঠিক থাকে। তবে নিয়মিত পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমও জরুরি। হার্টের সমস্যা না থাকলে ফুসফুস ভাল রাখতে বেলুন ফোলানো বা বাড়িতে দুবেলা শাঁখ বাজাতে পারেন। তবে বেশি না। অল্প সময়ের জন্য। এতে শ্বাস প্রশ্বাসের মাধ্যমে ফুসফুসের কার্যকারিতা ঠিক রাখা সম্ভব হয়। এর সঙ্গে প্রাণায়াম করতে পারেন। যেমন কপালভাতি, অনুলোম-বিলোম, ভ্রমরী, এবং ওং চ্যান্টিং নিয়মিত করলে অবশ্যই উপকার পাওয়া যায়। সঙ্গে ভূজঙ্গাসন করতে পারেন।

যাদের পা মুড়ে বসতে অসুবিধে আছে, তারা চেয়ার নিয়ে একটি ব্যায়াম করতে পারেন। সেক্ষেত্রে একটা চেয়ার নিয়ে তার সামনে মাটিতে বসে পা ছড়িয়ে দিন। বিছানার ওপর চাইলে সেভাবেও করতে পারেন। সেক্ষেত্রে চেয়ারের নিচে পা ছড়িয়ে দিন ও হাত দু’টি চেয়ারের বসার জায়গায় রাখুন।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এবার শ্বাস নিতে নিতে মাথাকে পিছনের দিকে হেলান এবং শ্বাস ছাড়তে ছাড়তে মাথা সামনের দিকে নিয়ে আসুন। মাথা সামনের দিকে আনার সময় মুখে ‘আ…’ শব্দটি করতে হবে। আর থুতনি কলার বোনের যত কাছে আনা সম্ভব আনতে হবে। এইভাবে অন্তত ৫-৬ রাউন্ড করতে হবে।

এই ব্যায়ামটি ক্ষেত্রে ধীরে ধীরে ঠোঁট বন্ধ রেখে নাক দিয়ে নিশ্বাস নিতে হবে। ১-৫ গুনে তার পর নাক বন্ধ করে ঠোঁট দিয়ে ফুঁ দেওয়ার মতো করে নিশ্বাস ছাড়তে হবে। একইভাবে নাক বন্ধ রেখে ফুঁ দেওয়ার মতো করে মুখ দিয়ে নিশ্বাস নিয়ে আবার ১-৫ গুনে শ্বাস আটকে রেখে নাক দিয়ে ছাড়তে হবে। পুরো কাজটি সার্কেল ওয়াইজ চলবে। এইভাবে দিনে দু’বার, প্রতিবার ১০ বার করে অভ্যাস করলে ফুসফুস ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই কমে যায়।

তাহলে নিজের ব্যস্ত জীবন থেকে অল্প কিছু সময়ের বিনিময়েই আপনি পেতে পারেন সুস্থ একটি ফুসফুস। তাই দেরি না করে আজ থেকেই শুরু করতে পারেন প্রতিদিনের শরীরচর্চা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!