এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > করোনা আবহে কুম্ভমেলা! এক বৃদ্ধার থেকেই আক্রান্ত আরও ৩৩ জন! চূড়ান্ত বিতর্ক শুরু দেশজুড়ে

করোনা আবহে কুম্ভমেলা! এক বৃদ্ধার থেকেই আক্রান্ত আরও ৩৩ জন! চূড়ান্ত বিতর্ক শুরু দেশজুড়ে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – দেশে করোনার দ্বিতীয় সুনামি চলছে। প্রতিদিন তিন লক্ষেরও বেশি মানুষ করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন, চার হাজারের কাছাকাছি দৈনিক মৃতের সংখ্যা। এই পরিস্থিতিতে কুম্ভ মেলার আয়োজন যথেষ্ট বিতর্ক সৃষ্টি করেছিল। কুম্ভ মেলায় পুণ্যস্নানে যাওয়া মানুষের থেকে করোনার সংক্রমণ ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে। গোষ্ঠী সংক্রমণ দেখা দেয় স্থানে স্থানে। রাজস্থান উত্তরপ্রদেশ যার মধ্যে শীর্ষে। এবার কুম্ভমেলা ফেরত পুণ্যার্থীর থেকে করোনা সংক্রমণ তীব্র আকারে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে কর্ণাটক রাজ্যেও। দেখা যাচ্ছে কুম্ভমেলায় পুণ্যস্নানে অংশগ্রহণ করা বেঙ্গালুরুর এক বৃদ্ধা একাই ৩৩ জন মানুষের দেহে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে দিয়েছেন।

বেঙ্গালুরুর বাসিন্দা ৬৭ বছরের এই বৃদ্ধা যখন কুম্ভ মেলা থেকে ফিরেছিলেন, তখন তাঁর কোন শারীরিক সমস্যার ছিলনা। সেসময় বহু মানুষের সঙ্গে তিনি সাধারন ভাবে মেলামেশা করেছিলেন। পরবর্তীতে করোনার উপসর্গ দেখা দেয় তাঁর। তিনি করোনা পরীক্ষা করান, জানতে পারেন যে তিনি করোনা সংক্রামিত হয়েছেন। এই বৃদ্ধার পরিবারের এক সদস্যা আবার মনোবিদ। যিনি করোনা আক্রান্ত হয়ে পড়েন, কিন্তু তিনি উপসর্গহীন ছিলেন। বেঙ্গালুরুর স্পন্দন হেলথ কেয়ার এন্ড রিসার্চ সেন্টারের চিকিৎসক তিনি। আর সেখান থেকে বহু মানুষের দেহে সংক্রমণ ছড়িয়ে দেন তিনি নিজের অজান্তেই, যার মধ্যে চিকিৎসকও ছিলেন।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

হেলথকেয়ারের ১৮ জন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী ও রোগীদের মধ্যে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ে। একাধিক চিকিৎসকের রিপোর্ট পজিটিভ আসতে শুরু হলে বাড়ে উদ্বেগ। একাধিক চিকিৎসকের করোনা সংক্রমণ দেখা দিলে তাঁদের আইসোলেশনে পাঠানো হয়। এখানকার স্বাস্থ্যকর্মী ও রোগীদের মধ্যে মোট ২০০ জনের করোনা পরীক্ষা করে ৫০ জন করোনা আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া যায়। যাদের মধ্যে ১২ জন রোগী, দুজন কর্মীও ছিলেন। পরিস্থিতি সামাল দিতে হেলথকেয়ারে দ্রুত কোভিড ওয়ার্ড খোলা হয়। সেখানে ৫০ টি বেডের ব্যবস্থা করা হয়। যদিও,এখন সকলে সুস্থ।

এভাবে নিজের অজান্তেই মোট ৩৩ জনকে করোনা আক্রান্ত করে দিয়েছেন কুম্ভ মেলায় পুণ্যস্নানে অংশগ্রহণ করতে যাওয়া ব্যাঙ্গালুরু এই বাসিন্দা। আরও কতজন পূর্ণার্থী যে এমনটা করেছেন, তা নিয়ে ঘুম উড়ছে বিশেষজ্ঞদের। করোনা আবহে কুম্ভ মেলার আয়োজন দেশের করোনা পরিস্থিতিকে আরও দুর্বিষহ করে তুলেছে বলেই, মনে করছেন একাধিক বিশেষজ্ঞ। মেলা ফেরত পুণ্যার্থীরা অনেক ক্ষেত্রেই করোনার সুপার স্পেডারের কাজ করছেন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!