এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > কংগ্রেসের হেভিওয়েট নেতাকে দলে পেয়ে উচ্চসিত বিজেপি, জোর সোরগোল!

কংগ্রেসের হেভিওয়েট নেতাকে দলে পেয়ে উচ্চসিত বিজেপি, জোর সোরগোল!



রাজ্য তথা জাতীয় রাজনীতিতে রীতিমত মাস্টার স্ট্রোক দিয়েছেন কংগ্রেসের হেভিওয়েট নেতা জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। তার মত নেতা কংগ্রেস দল ত্যাগ করে বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন, তা স্বপ্নেও কল্পনা করতে পারেনি কেউ। তবে রাজনীতিতে কোনো কিছুই চিরস্থায়ী নয়। গত বুধবারই ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগ দিয়েছেন মধ্যপ্রদেশের হেভিওয়েট কংগ্রেস নেতা জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। যার ফলে রীতিমতো উচ্ছ্বসিত হয়ে উঠেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। অনেকেরই দাবি, জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার পথ ধরে মধ্যপ্রদেশের একাধিক কংগ্রেস বিধায়ক এবার বিজেপিতে যোগ দেবেন। আর এর ফলেই মধ্যপ্রদেশের সরকার গঠন করবে গেরুয়া শিবির।

ইতিমধ্যেই বিজেপিতে যোগ দেওয়ার উপহার স্বরূপ জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়াকে রাজ্যসভার প্রার্থী করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। শুধু তাই নয়, তাকে সাংসদ করা হচ্ছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী করার জন্যই বলে দাবি একাংশের। সব মিলিয়ে জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার বিজেপিতে অভিষেকে রীতিমতো উচ্ছ্বসিত বিজেপি নেতারা।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার সকালে এই হেভিওয়েট কংগ্রেসত্যাগী নেতার সঙ্গে ছবি পোস্ট করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। যেখানে তিনি লেখেন, “জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া দলে আসায় বিজেপির পক্ষে মধ্যপ্রদেশের মানুষের জন্য কাজ করা অনেক সহজ হবে।”

 

অন্যদিকে এদিন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের বাড়িতে গিয়েও তার সঙ্গে দেখা করেন জ্যোতিরাদিত্য। পরবর্তীতে টুইটে রাজনাথ সিং লেখেন, “জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার সঙ্গে দেখা হল। বিজেপিতে তাকে স্বাগত জানাচ্ছি। তার অন্তর্ভুক্তি দলকে আরও শক্তিশালী করবে তার প্রতি শুভেচ্ছা রইল।” সব মিলিয়ে এখন বিজেপিতে যোগ দেওয়ার উপহার স্বরূপ জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়াকে বিজেপি সাংসদ করার পর কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কবে করে এবং তাতে কংগ্রেস কতটা চাপে পড়ে, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!