এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কংগ্রেস ও বামেদের ডাকা বনধকে ব্যর্থ করতে নয়া পদক্ষেপ রাজ্য সরকারের

কংগ্রেস ও বামেদের ডাকা বনধকে ব্যর্থ করতে নয়া পদক্ষেপ রাজ্য সরকারের



বনধ ডাকা সত্ত্বেও গাড়ি-ঘোড়া রাস্তায় স্বাভাবিক ভাবে চলা শুরু করলেও অনেক সময় বনধ সমর্থনকারীরা গাড়ি ভাঙচুর শুরু করে দেয়। এটা খুব সাধারণ ছবি বনধের। ফলত রাজ্যসরকার বনধের বিরোধীতা করলেও রাস্তাঘাটে গাড়ি কম চলে ওদিন। সমস্যার সম্মুখীন হন নিত্য যাত্রীরা। এই সমস্যার সমাধন সূত্র বের করল রাজ্য সরকার। বনধের দিনে রাস্তায় বেরিয়ে গাড়ি ভাঙচুর হলে ক্ষতিপূরণ দেবে রাজ্যসরকার। গাড়ি মালিকদের উদ্দেশ্যে এমনটাই বার্তা দিলেন এদিন পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী।

তবে এরজন্য করতে হবে একটা ছোট্ট কাজ। গাড়ি ভাঙচুরের ১২ ঘন্টার মধ্যেই থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করতে হবে। তাহলেই গাড়ির মালিককে রাজ্যসরকার বিমার ৭৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ক্ষতিপূরণ হিসাবে দেবে। এবং এই ক্ষতিপূরণের টাকা আগামী ৭২ ঘন্টার মধ্যে তাঁদের হাতে চলে আসবে। বাম ও কংগ্রেসের ডাকা বনধ রোধ করতে এরকম অভিনব পদক্ষেপ নিতে দেখা গেল রাজ্য সরকারকে।

রাজনৈতিক সূত্রের খবর থেকে জানা গিয়েছে, পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে আগামী সোমবার বনধের ডাক দিয়েছে কংগ্রেস। এবং সেই বনধে তাঁদের সাথ দিতে এগিয়ে আসবে বামেরাও। রাহুল গান্ধী এই মোদীবিরোধী আন্দোলনে তৃণমূল সহ সমস্ত বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোকেই আহ্বান জানিয়েছিলেন। কিন্তু রাজ্যসরকার এদিন বনধ সংক্রান্ত অভিনব সিদ্ধান্ত নিয়ে রাহুল গান্ধীকে সাফ বুঝিয়ে দিলেন বনধে কংগ্রেসের পাশে থাকছে না তৃণমূল কংগ্রেস। যদিও রাহুল গান্ধীকে আগেই তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়ে দিয়েছিলেন যে এই বনধকে সমর্থন করবে না তৃণমূল।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তারপর এদিনের বনধ সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে তৃণমূল পরিষ্কার জানিয়ে দিল, যে ইস্যুতেই বনধ হোক না কেন, সেই ইস্যুকে সমর্থন করলেও বনধকে সমর্থন করবে না রাজ্যসরকার। উল্লেখ্য,এর আগেও বরাবর বনধ বিরোধীতার সমর্থনেই ছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জানিয়ে দিয়েছিলেন,বনধের দিন সরকারি কর্মীদের অন্যান্য দিনের মতোই কাজে উপস্থিত থাকতে হবে। অর্ধেক দিনের ছুটিও মঞ্জুর করা হবে না। উপযুক্ত কারণ ছাড়া অনুপস্থিত থাকলে কাটা হবে বেতন। তারপর এদিন এক ধাপ এগিয়ে বনধ বিরোধীতায় ক্ষেত্রে আরো তাৎপর্যময় সিদ্ধান্ত নিতে দেখা গেল রাজ্যের পরিবহন দপ্তরকে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!