এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > ই-মনোনয়ন নিয়ে ফের চাপ বাড়ালো হাইকোর্ট, অস্বস্তিতে কমিশন

ই-মনোনয়ন নিয়ে ফের চাপ বাড়ালো হাইকোর্ট, অস্বস্তিতে কমিশন



আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনে ই-মনোনয়ন বিষয়ে উত্তর নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ আবার ও ধীক্কার জানলো রাজ্য নির্বাচন কমিশন’কে। সূত্রের খবর অনুয়ারী এদিন নির্বাচন কমিশনের তরফে সিপিএম-এর দেওয়া কাগজপত্রের কথা বলা হয় কলকাতা হাইকোর্টকে। এই সময়ে উত্তেজিত বিচারপতি বিশ্বনাথ সমাদ্দারের ডিভিশন বেঞ্চ কমিশনকে বললেন, “আপনাদের ঘুম এখনও ভাঙেনি।” এছাড়াও বিচারপতি সমাদ্দার রাজ্য নির্বাচন কমিশনের আইনজীবীকে প্রশ্ন করে বলেন , “ই-মেলে মনোনয়ন সংক্রান্ত রিপোর্ট কোথায়। যে সব ইমেলের কথা বলা হচ্ছে সেগুলি খতিয়ে দেখুন, তারপর তথ্য পেশ করুন।” উল্লেখ্য গত সপ্তাহে শুনানির সময় কলকাতা হাইকোর্ট পঞ্চায়েত নির্বাচনে কোনও প্রার্থী সংশ্লিষ্ট দফতরে মনোনয়ন পেশে বাধা পেয়ে থাকলে, নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে ই-মেল মারফত মনোনয়ন জমা করেছেন কিনা, তার প্রমাণ সহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য নির্বাচন কমিশনকে পেশ করতে বলে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

প্রসঙ্গত সিপিএম ই-মেলে মনোনয়ন পেশ বৈধ বলে গণ্য করার দাবি জানিয়ে মামলা করেছে । বিচারপতি বিশ্বনাথ সমাদ্দার ও বিচারপতি অরিন্দম মুখোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ গত ২৩শে এপ্রিল মনোনয়নপত্র পেশের অন্তিম দিন বেলা তিনটের মধ্যে কোন কোন প্রার্থী মনোনয়ন পেশ করেছেন, তার তথ্যপ্রমাণ রাজ্য নির্বাচন কমিশনের কাছে পাঠানোর জন্য সিপিএম-এর আইনজীবীকে নির্দেশ দিয়েছিলেন। ঐদিনের শুনানিতে সিপিএম-এর আইনজীবী শামিম আহমেদ অভিযোগ করেছিলেন, দুষ্কৃতীদের বাধায় অনেক জায়গায় প্রার্থীরা মনোনয়ন জমা দিতে পারেননি। আইনজীবী শামিম আহমেদের অভিযোগের ভিত্তিতে বিচারপতি প্রশ্ন কা? “এমন কতজন প্রার্থী রয়েছেন, যাঁরা মনোনয়ন জমা দিতে বাধা পেয়েছেন?” বাম দলের আইনজীবি জবাবে জানিয়েছিলেন সংখ্যাটা প্রায় হাজারখানেক। সেইসময়েই ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়েছিল, বাধা পাওয়ার পরে মনোনয়ন পেশের সময়সীমার মধ্যে নির্দিষ্ট জায়গায় প্রার্থী ই-মেল করেছেন, এমন তথ্য প্রমাণ সহ একটি রিপোর্ট কমিশনে জমা দিতে বলেন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!