এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > “কমিশনের জন্যই বিজেপি 77 টি আসন পেয়েছে” বিস্ফোরক দাবি করলেন মমতা!

“কমিশনের জন্যই বিজেপি 77 টি আসন পেয়েছে” বিস্ফোরক দাবি করলেন মমতা!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – নির্বাচন শুরু হওয়ার পর থেকেই কমিশন বিজেপির কথা মত করেছে বলে অভিযোগ করতে দেখা গেছে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। এক্ষেত্রে প্রায় প্রতিটি দফাতেই নির্বাচন কমিশন এবং কেন্দ্রীয় বাহিনী বিজেপির নির্দেশে কাজ করছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। আর এই পরিস্থিতিতে রাজ্যে যখন এবারের নির্বাচনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই, তখন কে সরকার গড়বে, সেটা লাখ টাকার প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছিল।

বিজেপি কার্যত আত্মবিশ্বাসী ছিল, এবার তারাই সরকার গড়তে চলেছে। তবে তৃতীয়বারের জন্য বিজেপির সেই ধারণাকে কার্যত মিথ্যে করে দিয়ে দুশোর বেশি আসন নিয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। অন্যদিকে ভারতীয় জনতা পার্টি দশো আসন দখলের স্বপ্ন দেখলেও, কার্যত 77 টি আসন দখল করেই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে তাদের। আর এই পরিস্থিতিতে বিজেপি নেতা কর্মীরা অনেকটাই মুষড়ে পড়েছেন।

তবে যে বিজেপি 2016 সালের তিনটি আসন পেয়েছিল, এক ধাক্কায় পাঁচ বছরের মধ্যে তারা 77 টি আসন দখল করে বিরোধী আসন লাভ করার কারণে গেরুয়া শিবিরের অনেকে যথেষ্ট উজ্জীবিত। তবে বিজেপি 77 টি আসন দখল করলেও, তা নির্বাচন কমিশনের জন্যই পেয়েছে বলে বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এক্ষেত্রে নির্বাচনের সময় যেমন তিনি বার বার নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে পক্ষপাতমূলক আচরণ করার অভিযোগ তুলেছেন, ভোটের ফলাফলের ক্ষেত্রেও বিজেপির এত আসন পাওয়ার জন্য যে নির্বাচন কমিশন সহযোগিতা করেছে, তা নিজের বক্তব্যের মধ্যে দিয়ে বুঝিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেন তৃণমূল নেত্রী বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

সূত্রের খবর, সোমবার কালীঘাটে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এই ব্যাপারে বিস্ফোরক অভিযোগ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “নির্বাচন কমিশন ছিল বলেই বিজেপি 77 টি আসন পেয়েছে। না হলে 50 টি আসনও পেত না।” অর্থাৎ ভারতীয় জনতা পার্টি এবারের নির্বাচনে 200 আসন দখল করে ক্ষমতায় আসার স্বপ্ন দেখেছিল। কিন্তু তাদের সেই স্বপ্ন বাস্তব হয়নি।

আর তারপরই নির্বাচনের সময় কমিশন যেমনভাবে বিজেপিকে সহযোগিতা করেছে বলে অভিযোগ তুলেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সেই একইভাবে বিজেপি 77 টি আসন পেত না বলে নির্বাচন কমিশনকে দায়ী করলেন তৃণমূল নেত্রী। যা যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। অর্থাৎ এক্ষেত্রে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই মন্তব্যের মধ্যে দিয়ে সরাসরি নির্বাচন কমিশনকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে বিজেপিকে সহযোগিতা করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুললেন বলেই মনে করছেন একাংশ।

তবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই বক্তব্য নিয়ে এখন নানা চর্চা শুরু হয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে। বিরোধীদের দাবি, আসলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপি বিরোধী আসনে বসার কারণে কিছুটা হলেও চাপে রয়েছেন। তিনি যতই জয়লাভ করুন না কেন, 2021 সালে বিধানসভার অলিন্দে বিরোধী শক্তি যে যথেষ্ট শক্তিশালী হয়ে উঠবে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

তাই এই পরিস্থিতিতে বিজেপি বিরোধী দলের আসন দখল করার সাথে সাথেই নির্বাচন কমিশনের সহযোগিতার কারণেই তারা 77 টি আসন পেয়েছে বলে অভিযোগ করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে একজন মুখ্যমন্ত্রীর পক্ষ থেকে নির্বাচন কমিশনের মত নিরপেক্ষ সাংবিধানিক সংস্থাকে এভাবে আক্রমণ করা কতটা যুক্তিযুক্ত, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন সমালোচক মহলের একাংশ। সব মিলিয়ে গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!