এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > মুখ্যমন্ত্রীর সাধের স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প নিয়ে অনুপ্রেরণা নিয়েই কি ‘আয়ুষ্মান ভারত’? বাড়ছে জল্পনা

মুখ্যমন্ত্রীর সাধের স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প নিয়ে অনুপ্রেরণা নিয়েই কি ‘আয়ুষ্মান ভারত’? বাড়ছে জল্পনা



উন্নয়নে বরাবরই কেন্দ্রকে টেক্কা দিয়েছে বাংলা। ক্ষমতায় আসার পর থেকেই সারা দেশের মধ্যে বিভিন্ন বিষয়ে রাজ্য প্রথম স্থান অধিকার করায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, ” বাংলা আজ যা করে, ভারত কাল তা ভাবে।” এবার মুখ্যমন্ত্রীর সেই বক্তব্যকে সত্যি করেই রাজ্যের “স্বাস্থ্যসাথী” প্রকল্পের মতই ” আয়ুস্মান ভারত” নামে একটি নতুন প্রকল্প চালু করতে উদ্যোগী কেন্দ্র সরকার।

সূত্রের খবর,  বাংলা, অন্ধ্রপ্রদেশ, মনিপুর, হরিয়ানা, ছত্তিশগঢ় ও গুজরাতে প্রথমে পাইলট প্রজেক্ট হিসাবে তাঁদের এই প্রকল্পটি চালু করতে চায় কেন্দ্র। আর এতেই তীব্র সংঘাত তৈরি হয় বাংলার তৃনমূল ও কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের মধ্যে। রাজ্যে স্বাস্থসাথী প্রকল্প চালু আছে। তাই কেন্দ্রের এই প্রকল্পের কোনো প্রয়োজন নেই বলে বেকে বসে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। পরে অবশ্য দু পক্ষের আলোচনায় একটি সমাধানসূত্র বেরোয়।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে।

এই ” আয়ুস্মান ভারত” বা ” সকলের জন্য চিকিৎসা” দেশের প্রায় 10 কোটি গরিব পরিবারকে প্রায় 5 লক্ষ টাকার স্বাস্থ্য সুবিধা দেবে। আর এতে 60% খরচ দেবে কেন্দ্র। আর বাকিটা দিতে হবে রাজ্যকেই। আর এখানেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, রাজ্যে স্বাস্থ্য ব্যাবস্থার উন্নতিতে গরিব মানুষদের জন্য স্বাস্থবিমা চালু করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার ওপর এখন সেই একই প্রকল্প রাজ্যে করার জন্য চাপ দেওয়ায় বাংলার শূন্য কোষাগারে তো আরও চাপ পড়বে।

তাহলে যেখানে এই প্রকল্প নেই সেখানেই যদি কেন্দ্র এই প্রকল্প গড়ত, তাহলে কি সেই মানুষগুলো বেশি সুযোগ পেত না! সমালোচকদের মতে, সামনেই 2019 র লোকসভা নির্বাচন। আর তাইতো এখন থেকেই তেলা মাথায় তেল দিয়ে ” মোদী কেয়ার” কেই তুলে ধরতে চায় কেন্দ্রের বিজেপি সরকার।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!