এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মুখ্যমন্ত্রী দেখানো পথেই দুর্গাপুজোর রেডরোড দমদমে কালীপূজায় তুলে আনছে পুরসভা

মুখ্যমন্ত্রী দেখানো পথেই দুর্গাপুজোর রেডরোড দমদমে কালীপূজায় তুলে আনছে পুরসভা



বিগত বেশ কয়েক বছর ধরে বাংলার দুর্গোৎসবকে অনন্য রূপ দিতে রেড রোডে দুর্গা কার্নিভালের আয়োজন করেছে রাজ্য সরকার। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে এই দুর্গা কার্নিভালের অনুষ্ঠান মন কেড়েছে আট থেকে আশি সকলেরই। আর এবার মুখ্যমন্ত্রীর দেখানো পথেই সেই দুর্গা কার্নিভালের ধাঁচেই কালীপ্রতিমা সহকারে শোভাযাত্রা করে বিসর্জনের উদ্যোগ নিচ্ছে দমদমের কালীপুজো উদ্যোক্তারা।

সূত্রের খবর, আজকের এই কার্নিভালে দমদমের বেশ কয়েকটি ক্লাব অংশ নেবে। জানা গেছে, সন্ধ্যা সাতটা নাগাদ দমদমের পূর্ব সিঁথি থেকে শুরু এই কার্নিভালের উদ্বোধন করবেন বিধায়ক তথা রাজ্যের মন্ত্রী ব্রাত্য বসু। ইতিমধ্যেই এক কার্নিভালকে ঘিরে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। কালী প্রতিমার পাশাপাশি বাংলার লোকসংস্কৃতি আদিবাসী নাচ, ছৌ, ভাঙড়া এবং ঢাকের বাদ্যিও থাকবে এই কার্নিভালে।

এদিনের এই কার্নিভালে দমদম ইয়ং স্পোর্টিং ইউনিয়ন, মেলামেশা সংঘ, কদমতলা সাতের পল্লী, ময়দান পল্লি ফ্রেন্ডস ক্লাব, মধুগড় স্পোটিং ক্লাব, নবারুণ সংঘ, মুক্তদল, প্রতিমা শঙ্ঘ, মধুগড় মহিলা সঙ্ঘের মতো বেশ কয়েকটি ক্লাব অংশগ্রহণ করবে।

কিন্তু ঠিক কোন পথ ধরে যাবে এই কার্নিভাল? জানা গেছে, পূর্বসিঁথি থেকে শুরু হওয়া এই কার্নিভাল দক্ষিন দমদম পুরসভার 12 নম্বর ওয়ার্ডের বিভিন্ন জায়গা পরিক্রমা করে এমসি গার্ডেন রোড থেকে দমদম রোড হয়ে গরুহাটা দিয়ে সোজা ক্যান্টনমেন্ট ধোবিপুকুরে গিয়ে নিজেদের প্রতিমা বিসর্জন করবে। কিন্তু সন্ধে নাগাদ এই কার্নিভালের জেরে রাজপথে প্রবল যানজটের আশঙ্কা হতে পারে বলে মনে করছেন অনেকে।

তবে উদ্যোক্তাদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, কার্নিভালের সময় রাস্তার একটি দিক খুলে দেওয়া হবে। পাশাপাশি দমদম রোডের এই কার্নিভালে বড় রকম যানজটের কারণে সন্ধ্যের পর থেকে সেই দমদম রোড সকলকে এড়িয়ে যাওয়ারই পরামর্শ দিচ্ছেন অনেকে।

এদিকে শুধু কার্নিভালের কালী প্রতিমাগুলোই নয়, এদিন আরও বিভিন্ন ক্লাবের প্রতিমা এই ধোবিঘাটে বিসর্জন করা হবে। আর তাই বিসর্জনের ঘাটগুলিতেও সমস্ত রকম নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে আঁটোসাঁটো করছে প্রশাসন। পাশাপাশি বিসর্জনে ডিজে বাজানোর ব্যাপারেও জারি করা হয়েছে নিষেধাজ্ঞা।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এদিন এ প্রসঙ্গে ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের ডিসি জোন 2 আনন্দ রায় বলেন, “বিসর্জনের জন্য যা নিয়ম আছে তা সকলকেই মেনে চলতে হবে।” সব মিলিয়ে দুর্গাপুজোর মত কালি পুজোতেও যাতে কোন রকম বিশৃঙ্খলা না হয় তার জন্য প্রস্তুত প্রশাসন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!