এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > পঞ্চায়েতের নির্ঘন্ট নিয়ে তীব্র সংঘাত কমিশন-সরকারে? কবে হচ্ছে ভোটগ্রহণ?

পঞ্চায়েতের নির্ঘন্ট নিয়ে তীব্র সংঘাত কমিশন-সরকারে? কবে হচ্ছে ভোটগ্রহণ?



আদালতের রায়ের পর নির্বাচন কমিশন আপৎকালীন ভিত্তিতে আলোচনা করে মনোনয়নের অতিরিক্ত দিন, মনোনয়ন স্ক্রুটিনির দিন ও মনোনয়ন প্রত্যাহারের দিন ঘোষণা করে, কিন্তু নির্বাচনী নির্ঘন্ট নিয়ে কোনো ঘোষণায় করে না। পরে জানা যায়, গতকাল দুপুরের দিকে রাজ্য সাকারের সঙ্গে আলোচনা হতে পারে, কিন্তু গতকাল মনোনয়ন নিয়ে ব্যস্ত থাকায় সেই আলোচনা শেষ পর্যন্ত হয় না। সূত্রের খবর অনুযায়ী জানা যায় আজ সেই আলোচনা হয়ে নির্বাচনী নির্ঘন্ট প্রকাশ করতে পারে নির্বাচন কমিশন। কিন্তু আজ সকালে রাজ্য সরকারের পক্ষে সৌরভ দাস কমিশনে গিয়ে বৈঠক করলেও কোনও সমাধান সূত্র মেলেনি বলেই জানা যাচ্ছে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এর আগে কলকাতা হাইকোর্টের রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে নির্বাচন কমিশন যখন পৃথক-পৃথক ভাবে প্রতিটি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে বৈঠক করে, তখন তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে সেখানে যান দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সী। বৈঠক সেড়ে বেরিয়ে পার্থবাবু সাংবাদিকদের জানান, আমরা গরমে ভোট চাই না, রমজান মাসে ভোট চাই না, বর্ষাকালে ভোট চাই না। প্রয়োজনে একদফায় নির্বাচন হলেও তাতে আমাদের কোনো আপত্তি নেই। সূত্রের খবর নিজেদের সেই অবস্থান থেকে সরে এসে দুই দফায় ভোটে রাজি রাজ্য সরকার। কিন্তু নির্বাচন কমিশন কোনো অবস্থাতেই তিন দফায় নির্বাচন থেকে পিছিয়ে আসতে রাজি নয়। এমনিতেই আইনি জটে পঞ্চায়েতের ভোটগ্রহণ ১৪ মের আগে শুরু করা সম্ভব নয়। তাই সম্ভাব্য দিন হিসাবে ১৪ ও ১৬ তারিখের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে রাজ্য সরকারের তরফে, ভোটগণনা ২০ তারিখ। প্রসঙ্গত, রমজান মাস শুরু হয়ে যাচ্ছে ১৫-১৬ মে, কমিশনের যুক্তি যে কোন পরিস্থিতিতেই যেহেতু রমজানে মাসের মধ্যে নির্বাচনী প্রক্রিয়া চলে যাচ্ছে, তাহলে কেন ২ এর জায়গায় ৩ দফা নির্বাচন করা হবে না? এখানেই আপাতত আটকে পঞ্চায়েত জট। সূত্রের খবর, কমিশনের এই বার্তা নিয়ে নবান্নে ফিরে মুখ্যমন্ত্রী ও মুখ্যসচিবের সঙ্গে আলোচনা করে আবার সন্ধ্যের দিকে কসিশনে ফিরতে পারেন আলোচনার জন্য, আর তখনই কাটতে পারে এই জট। ফলে আজ রাত্রের দিকেই ঘোষিত হতে পারে পঞ্চায়েতের নির্ঘন্ট।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!