এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > সোশাল মিডিয়ার দৌলতে-আইন ভেঙে সাসপেন্ড হলেন আইন সামলানো সিভিক ভলান্টিয়ার

সোশাল মিডিয়ার দৌলতে-আইন ভেঙে সাসপেন্ড হলেন আইন সামলানো সিভিক ভলান্টিয়ার



এ যেন রক্ষকই ভক্ষক। কদিন আগে দঃ দিনাজপুরের বালুরঘাটের বাসিন্দা সুজয় দাস হিলি গাজোল 512 নং জাতীয় সড়কের এখটি ভিডিও তুলে সোশাল মিডিয়ায় পোষ্ট করলে তা নিয়ে রিতীমত সোরগোল পড়ে যায়। দেখা যায় আইনের রক্ষাকর্তা এক সিভিল ভলান্টিয়ার আইনকেই কার্যত বুড়ো আঙুল দেখিয়ে হেলমেট ছাড়া মোটর বাইক চালাচ্ছেন। আর এই ভিডিও জেলা পুলিশ প্রশাসনের নজরে আসলে বাউলের বাসিন্দা মিলন সরকার নামে পতিরাম পুলিশ ফাঁড়িতে নিযুক্ত ওই সিভিক ভলান্টিয়ারকে ট্রাফিক আইন না মানার অপরাধে নিজের পদ থেকে সাময়িকভাবে সরিয়ে দেয় জেলা প্রশাসন। সূত্রের খবর, এ জিনিস জেলায় নতুন নয়।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

মুখ্যমন্ত্রীর “সেভ ড্রাইভ, সেভ লাইফ” প্রকল্পে সাধারন মানুষ হেলমেট না পড়লে ফাইন, অথচ প্লায়ই সেই ফাইন নেওয়া পুলিশ কর্তাদেরই হেলমেটবিহীন অবস্থায় দেখা যায়। এদিকে এই সিভিক ভলান্টিয়ারের হেলমেটবিহীন বাইক চালানো নিয়ে ডেপুটি পুলিস সুপার ( ট্রাফিক) ধীমান মিত্র বলেন, “ঘটনাটি নজরে আসার পর ওই সিভিক ভলান্টিয়ারকে কয়েক মাসের জন্য কাজ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। আমরা এ জন্য সিভিক ভলান্টিয়ার ও পুলিস কর্মীদের আইন মানার বিষয়ে সচেতনতা শিবির করব।” সব মিলিয়ে সরকারের কড়া নির্দেশনামার পরও জেলার আইনের কর্তারাই হেলমেট না পড়ে ভাঙছে আইন।

আপনার মতামত জানান -

Top
Facebook Friends
error: Content is protected !!