এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > “সেন্ট্রাল ফোর্স থাকলে তবেই নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন সম্ভব।” – বিস্ফোরক বিজেপির রাজ্য সভাপতি

“সেন্ট্রাল ফোর্স থাকলে তবেই নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন সম্ভব।” – বিস্ফোরক বিজেপির রাজ্য সভাপতি



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – গতকাল ঘোষিত হলো আগামী বিধানসভা নির্বাচনের নির্ঘণ্ট। ৮ দফায় নির্বাচনের পাশাপাশি, কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ অফিসারকে পাঠানো হচ্ছে রাজ্যে অবজার্ভার হিসেবে। নির্বাচন কমিশনের এই ঘোষণার পর এ বিষয়ে বক্তব্য রাখলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন যে, এক বিশেষ রাজনৈতিক দলকে সুবিধা করে দিতে এ সমস্ত করেছে নির্বাচন কমিশন। মুখ্যমন্ত্রীর এই বক্তব্যর পর তার পাল্টা প্রত্যুত্তর করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এ প্রসঙ্গে তিনি জানান যে, কাউন্টডাউন শুরু হয়ে গেছে, তাঁরা সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত আছেন।

গতকাল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন যে, এক বিশেষ রাজনৈতিক দলকে সুবিধা করে দিতেই এ সমস্ত করেছে নির্বাচন কমিশন। তিনি প্রশ্ন করেছেন যে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের কথায় কি এসব করা হয়েছে? কটাক্ষ করে তিনি জানিয়েছেন যে, প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অসমের নির্বাচনী প্রচারের কাজ সেরে যাতে এরাজ্যে প্রচারে আসতে পারেন, তাই কি এসব করা হচ্ছে? এর পরেই তাঁদের চ্যালেঞ্জ করে মুখ্যমন্ত্রী জানান যে, তাঁরা যদি খেলতে চান, তবে খেলা হবে। ৮ দফাতেই খেলা হবে। একেবারে হারিয়ে ভূত করে দেবার চ্যালেঞ্জ করলেন তিনি।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

মুখ্যমন্ত্রী জানান, তিনি বিজেপির লিস্টে যা দেখেছেন, সেটিই ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। তিনি জানান,বিবেক দুবে ইতিপূর্বেও বাংলার অবজারভার ছিলেন। তিনি তাঁর নাটক অনেক দেখেছেন। বিজেপিকে হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি জানালেন যে, ক্ষমতার অপব্যবহার করে এখানে তাঁরা কিছুই করতে পারবেন না। মুখ্যমন্ত্রীর একাধিক বিস্ফোরক বক্তব্যের পর, তার পাল্টা জবাব দিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

এ প্রসঙ্গে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানালেন যে, কেন্দ্রীয় বাহিনী যদি থাকে, তবেই শান্তিপূর্ণ ও নিরপেক্ষ ভাবে নির্বাচন করা সম্ভব। নির্বাচন কমিশন সেদিকেই কাজ করেছে। দিলীপ ঘোষ জানালেন যে, তাঁরা সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত আছেন। কাউন্টডাউন শুরু হয়ে গেছে। বিজেপি সংগঠনের একবারে নিচু তলা পর্যন্ত শক্তিশালী। তৃণমূলের অনেক বড় প্রভাবশালী নেতা বিজেপিতে যোগদান করেছেন। আরও অনেকে চলে আসবেন বিজেপিতে।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!