এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে তৃণমূল “অতি সক্রিয়তার” অভিযোগ আনতেই ভিডিও ফুটেজ চাইল কমিশন

কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে তৃণমূল “অতি সক্রিয়তার” অভিযোগ আনতেই ভিডিও ফুটেজ চাইল কমিশন



লোকসভা নির্বাচনের দামামা বাজবার সাথে সাথেই রাজ্যে প্রবেশ করেছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। আর এই কেন্দ্রীয় বাহিনী রাজ্যে এসেই অতিসক্রিয়তা শুরু করেছে বলে কদিন আগেই সেই কেন্দ্রের বাহিনীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করতে দেখা গেছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও রাজ্যের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে।

যা নিয়ে তোলপাড় হয়ে উঠেছে রাজ্য রাজনীতি। আর রাজ্যের শাসক দলের নেতারা কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ করলে এবার সেই অভিযোগের ঠিক কতটা সত্যতা রয়েছে তা নিয়ে উত্তর কলকাতার জেলা নির্বাচন আধিকারিক দিব্যেন্দু সরকারের কাছে একটি রিপোর্ট চাইল নির্বাচন কমিশন।

পাশাপাশি এই ব্যাপারে একটি ভিডিও ফুটেজও জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এদিন এই প্রসঙ্গে কমিশন বলেন, “কেন্দ্রীয় বাহিনী সত্যিই প্রোটোকল ভেঙেছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। যদি তারা সত্যি সত্যিই প্রোটোকল ভেঙ্গে থাকেন তাহলে তাদেরকে সতর্ক করা হবে।”


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে রাজ্যে আদর্শ আচরণ বিধি লাগু হয়ে যাওয়ার পর কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়ে শাসকদলের নেতা ফিরহাদ হাকিম যেভাবে বিস্ফোরক মন্তব্য করছেন, তা নিয়ে এদিন নির্বাচন কমিশনের কাছে একটি অভিযোগ করলেন সিপিএমের রবীন দেব। আর এই সিপিএম নেতার এহেন অভিযোগের ভিত্তিতেই সত্যিই ফিরহাদ হাকিম যা বলেছেন তা নির্বাচনী আদর্শ আচরণবিধি লংঘন করছে কিনা সেই ব্যাপারে খতিয়ে দেখতে শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন।

পাশাপাশি বিজেপির এক নেতার মন্তব্যকেও খতিয়ে দেখছে কমিশন। পাশাপাশি আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে টিভি চ্যানেলে বসে বিভিন্ন ধরনের রাজনৈতিক নেতারা ঠিক কি কি মন্তব্য করছেন সেই ব্যাপারেও নজরদারি রাখার জন্য মুখ্য নির্বাচন আধিকারিকের দপ্তরে ছতলায় মিডিয়া ওয়াচ সেন্টারও খোলা হয়েছে বলে জানা গেছে।

সব মিলিয়ে একদিকে কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়ে রাজ্যের শাসকদলের নেতাদের বিস্ফোরক মন্তব্যের তদন্ত আর অন্যদিকে কোনো রাজনৈতিক দলের নেতা যাতে কোনরূপ বিতর্কিত মন্তব্য না করতে পারেন তার দিকেও নজরদারি নির্বাচন কমিশনের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!