এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > বড় ধাক্কা তৃণমূলে! পদত্যাগ করলেন শুভেন্দুর অন্যতম ঘনিষ্ঠ হেভিওয়েট নেতা, শোরগোল রাজ্য জুড়ে!

বড় ধাক্কা তৃণমূলে! পদত্যাগ করলেন শুভেন্দুর অন্যতম ঘনিষ্ঠ হেভিওয়েট নেতা, শোরগোল রাজ্য জুড়ে!



আপনাদের সুবিধার্থে খবরের শেষে বিধানসভা ২০২১ উপলক্ষে আমাদের করা সর্বশেষ সমীক্ষার প্রতিটির লিঙ্ক দেওয়া আছে।

আপনার মতামত জানান -

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –  শুভেন্দু অধিকারীর অনুগামী বলে পরিচিত তৃণমূল নেতা প্রণব বসু মেদিনীপুর পুরসভার পুর প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারম্যান ছিলেন। গতমাসে অকস্মাত্ তাঁকে এই পথ থেকে অপসারিত করা হয়। একারণে, আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন তিনি। এদিকে তিনি আবার মেদিনীপুর জেলা পরিষদের মেন্টর। এই পদ থেকেও তাঁকে সরিয়ে দেয়া হবে, এমন আশঙ্কা ছিল তাঁর। আজ মঙ্গলবার তিনি নিজেই ইস্তফা দিলেন। আজ দুপুরে জেলা পরিষদে গিয়ে নিজের পদত্যাগ পত্র জমা দিলেন তিনি। এদিকে আগামী ৭ ই ডিসেম্বর মেদিনীপুরে সভা করতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর পূর্বে মেন্টর পদ থেকে অব্যাহতি নিলেন তিনি। যাকে কেন্দ্র করে অনেক দূর পর্যন্ত জল্পনা ছড়ালো। তবে এ বিষয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছে জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে ভাড়া করা একটি গাড়িতে করে জেলা পরিষদ অফিসে গিয়েছিলেন তৃণমূল নেতা প্রণব বসু। সূত্রের খবর, জেলা পরিষদের সচিব বা সভাধিপতি কারো সঙ্গেই তিনি দেখা করেননি। তিনি বড়বাবুর দপ্তরে চলে যান। সেখানে গিয়ে তাঁর খামবন্দী ইস্তফা পত্র জমা দিয়ে আসেন। এ প্রসঙ্গে তৃণমূল নেতা প্রণব বসু জানিয়েছেন যে, পুরসভা থেকে কোন কিছু না জানিয়েই, অকস্মাৎ তাঁকে অপসারিত করা হয়েছিল।

তাই জেলা পরিষদের মেন্টর পদ থেকেও যে কোন মুহূর্তে তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হতে পারে হতে পারে, বলে আশঙ্কা ছিল তাঁর তাই অপমানিত হতে না চেয়ে, নিজেই ইস্তফাপত্র জমা দিলেন তিনি। তাঁর কথায়, ” ১৮ নভেম্বর মেদিনীপুর পুরসভার পুরপ্রশাসক বোর্ডের সদস্যপদ থেকে সরিয়ে দেয় রাজ্য সরকার। আমাকে যে ওই পদ থেকে সরানো হচ্ছে, তার আগাম কোনও খবর পাইনি। পুরসভা সূত্রে জানতে পারি, আমাকে অব্যাহতি দিয়েছে রাজ্য প্রশাসন।”


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

প্রসঙ্গত গত ২০১৮ সালের ১৫ ই ডিসেম্বর পর্যন্ত মেদিনীপুর পুরসভার চেয়ারম্যান ছিলেন তৃণমূল নেতা প্রণব বসু। তারপর তাঁকে পুরপ্রশাসক করা হয়। এরপর গত ১৮ ই নভেম্বর রাজ্য সরকারের এক নির্দেশিকাতে পুরপ্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয় খড়গপুর (গ্রামীণ) এর বিধায়ক দীনেন রায়কে। এই ঘটনায় আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন তিনি। তাঁকে পুরো প্রশাসক বোর্ডের সদস্য পদ থেকে কেন সরানো হলো? তা জানতে চেয়ে কলকাতা হাইকোর্টে রিট পিটিশন দাখিল করেছেন তিনি।

প্রসঙ্গত শুভেন্দু অধিকারীর অনুগামী বলে পরিচিত আছেন প্রণব বসু। বিজয়া সম্মিলনীর অনুষ্ঠানে শুভেন্দু অধিকারী সঙ্গে তাঁকে এক মঞ্চে দেখা গিয়েছিল। তারপর থেকে শুরু রাজনৈতিক জল্পনা। এ প্রসঙ্গে তিনি জানিয়েছেন যে, শুভেন্দু অধিকারী দলে আছেন। মন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দিলেও দলের কর্মী হিসেবে থেকে গিয়েছেন তিনি। যেহেতু তিনি দলের কর্মী। তাই তাকে নেতা বলে মনে করেন তিনি। তিনি যতক্ষণ পর্যন্ত দল ছাড়ছেন না, বা দল তাঁকে সরিয়ে দিচ্ছে না। ততক্ষণ পর্যন্ত নেতা হিসেবে তিনি মেনে চলবেন তাঁকে। তিনি অন্য কোথাও গেলে তখন ভেবে দেখবেন তিনি।

শুভেন্দু অধিকারীর দল ত্যাগ নিয়ে মুখ না খুললেও দলের বিরুদ্ধে নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করলেন তিনি। তিনি অভিযোগ করেছেন যে, দলের মধ্যে দূরত্ব তৈরি হয়ে গেছে। দলের বহু মিটিংয়ে ডাক পাচ্ছেন না তিনি। আগামী ৭ ই ডিসেম্বর মুখ্যমন্ত্রীর জনসভায় তিনি ডাক পাবেন কিনা? তা নিয়েও সংশয় রয়েছে তাঁর। তবে, তিনি জানালেন যে, তিনি দলের হয়ে কাজ করবেন। জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব এ বিষয়ে একেবারেই মুখে কুলুপ এঁটেছে। এ প্রসঙ্গে জেলা পরিষদের সভাধিপতি উত্তরা সিংহ হাজরা জানালেন যে, এই বিষয়টি তার জানা নেই। জেলা পরিষদে যাবার পর এ বিষয়ে জানতে পারবেন তিনি। অন্যদিকে, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা তৃণমূল সভাপতি অজিত মাইতি জানালেন যে, তিনি বিষয়টি জানেন না। ফলে এই বিষয় নিয়ে তিনি কোনো বক্তব্য রাখতে চান না। তবে, বিষয়টি নিয়ে শোরগোল পরে গেলো রাজ্যজুড়ে।

একনজরে দেখে নিন আমাদের সর্বশেষ বিধানসভা ২০২১ ওপিনিয়ন পোল –

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – দ্বিতীয় পর্ব – 

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – প্রথম পর্ব – 

# মালদহ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# উত্তর দিনাজপুরে জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# জলপাইগুড়ি ও কালিম্পঙ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# আলিপুরদুয়ার ও দার্জিলিং জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# কুচবিহার জেলার ওপিনিয়ন পোল –

আপনার মতামত জানান -
আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!