এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > বঙ্গভঙ্গের দাবীই কি এবার উত্তরবঙ্গের গেরুয়া শিবিরে ধরাচ্ছে ফাটল? বিতর্ক তুঙ্গে

বঙ্গভঙ্গের দাবীই কি এবার উত্তরবঙ্গের গেরুয়া শিবিরে ধরাচ্ছে ফাটল? বিতর্ক তুঙ্গে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – রাজ্যজুড়ে বিজেপি এবং তৃণমূলের তরজা জমে উঠেছে বঙ্গভঙ্গ আন্দোলন নিয়ে। সম্প্রতি উত্তরবঙ্গের আলিপুরদুয়ারের বিজেপি সাংসদ দাবি করেন, উত্তরবঙ্গকে আলাদা রাজ্য হিসেবে ঘোষণা করার। এই নিয়ে তিনি কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কাছেও আবেদন জানিয়েছেন বলে খবর। কিন্তু বিজেপি সাংসদ উত্তরবঙ্গকে আলাদা রাজ্য করার দাবিতে সরব হলেও এই দাবি ঘিরে কিন্তু ইতিমধ্যে উত্তরবঙ্গের গেরুয়া শিবিরের অন্দরে শুরু তীব্র বিতর্ক। পাশাপাশি এবার উত্তরবঙ্গে গেরুয়া শিবিরে ফাটল ধরছে বলে জানা যাচ্ছে। সূত্রের খবর, যে উত্তরবঙ্গের গেরুয়া সংগঠন প্রবল খারাপ পরিস্থিতিতেও দলের মান ধরে রেখেছে, এবার সেই সংগঠনে ধ্বস নামার ইঙ্গিত।

এতদিন যাবত এমনিতেই শোনা যাচ্ছিল উত্তরবঙ্গে কেন্দ্রীয় শাসন জারি হতে পারে। তার মধ্যেই বঙ্গভঙ্গ প্রস্তাব নিয়ে রাজ্য রাজনীতিতে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে। কিন্তু এর ফলে যেমন তৃণমূলের পক্ষ থেকে কড়া প্রতিক্রিয়া দেওয়া হয়েছে, ঠিক একইভাবে গেরুয়া শিবিরের অন্দরেও বঙ্গভঙ্গ প্রস্তাবের বিরোধিতায় দলে ভাঙন লাগতে শুরু করেছে। ইতিমধ্যেই আলিপুরদুয়ার জেলা বিজেপির সভাপতি গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা এবং তাঁর অনুগামী ও দলবলরা একযোগে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। আজকে দলবদল প্রসঙ্গে গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা জানিয়েছেন, বিজেপি সাংসদ জন বার্লা বঙ্গভঙ্গের যে প্রস্তাব দাবী করেছেন তাতে কোনো মতেই সায় নেই তাঁর।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এমনকি আলিপুরদুয়ারের বাসিন্দারাও সাংসদের এই প্রস্তাবের বিরোধিতা করছে। পাশাপাশি তিনি দাবি করেছেন, আলিপুরদুয়ারের সাংসদ যে মন্তব্য করেছেন এরপর ডুয়ার্সেও বিজেপি শিবিরে ভাঙন ধরবে। আর জেলা বিজেপির প্রাক্তন সভাপতি এই মন্তব্য কার্যত গেরুয়া শিবিরকে তীব্র অস্বস্তির মুখে দাঁড় করিয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। রাজনৈতিক মহলের অনেকেই মনে করছেন, উত্তরবঙ্গের যে শক্তপোক্ত গেরুয়া সংগঠন ছিল তা কিন্তু এবার সাংসদ জন বার্লার বঙ্গভঙ্গের মন্তব্যের জেরে জোরদার ধাক্কা খেতে পারে এবং শুধু দলবদলু নেতারাই যে এবার ফিরে আসবেন তা নয়, এবার গেরুয়া শিবিরের আদি কর্মীরাও ক্ষোভ প্রকাশ করে দল ছাড়তে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে।

সেক্ষেত্রে অনুমান, গঙ্গাপ্রসাদ শর্মার মতন অনেকেই তৃণমূলে যোগ দেবেন। এবং আদি বিজেপি কর্মীদের জন্য কিন্তু তৃণমূল দরজা খোলা রাখছে, যা গেরুয়া শিবিরের জন্য বড়সড় দুঃসংবাদ বলেই দাবী বিশেষজ্ঞদের। শোনা যাচ্ছে, বঙ্গভঙ্গের সিদ্ধান্তকে মেনে নিতে না পেরে ইতিমধ্যেই গেরুয়া শিবিরের অন্দরে উঠেছে বিতর্কের ঝড় এবং তাতে অনেকেই দল ছাড়ার পথে। যদিও গেরুয়া শিবিরের পক্ষ থেকে জন বার্লার এই মন্তব্যকে ব্যক্তিগত মন্তব্য বলে দায় এড়িয়ে যাওয়া হয়েছে বলেই মনে করছেন অয়াকিবহাল মহলের একাংশ। আপাতত উত্তরবঙ্গের গেরুয়া শিবিরের ফাটল ঠেকাতে এবার বিজেপি নেতৃত্ব কি পদক্ষেপ গ্রহণ করে, সেটাই দেখার।

আপনার মতামত জানান -

ট্যাগড
Top
error: Content is protected !!