এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > শাসকদলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ফলে এলাকায় ব্যাপক বোমাবাজি, আতঙ্কিত সাধারণ মানুষ

শাসকদলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ফলে এলাকায় ব্যাপক বোমাবাজি, আতঙ্কিত সাধারণ মানুষ

Priyo Bandhu Media


ঢোলাহাটের শঙ্করপুর পঞ্চায়েতের বেশ কয়েকটি গ্রামে কয়েক মাস ধরে প্রতি রাতে বোমার আওয়াজ পাচ্ছেন মানুষ। গত মে মাসে শঙ্করপুরে তৃণমূলের নতুন সভাপতি হন ওমর ফারুক হালদার। অভিযোগ তারপর থেকেই তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে চলছে বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষ। সংঘের্ষ এখনও পর্যন্ত আহত হয়েছেন ৫০ জনেরও বেশি মানুষ। তার মধ্যে কয়েকজন শিশু ও মহিলাও আছেন। পরিস্থিতি আয়ত্তে আনতে কার্যত ব্যর্থ দল ও প্রশাসন। পুলিশের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন বাসিন্দারা।
মূলত তিনটি বিষয় – পারিবারিক ঝামেলা, জমি বিবাদ ও ধানকাটা নিয়ে বিবাদ আব্দুস সালাম শাহ এবং ওমর ফারুক মধ্যে বলে অভিযোগ। যা বর্তমানে দুই গোষ্ঠীর রেষারেষিতে পরিণত হয়েছে। এলাকার দখল রাখতে মরিয়া দুই গোষ্ঠী একে অন্যের বিরুদ্ধে ঝুড়ি ঝুড়ি অভিযোগ নিয়ে হাজির হচ্ছে থানায়। তৃণমূলের প্রাক্তন সভাপতি আব্দুস সালাম শাহ দাবী করেন যে তাঁরা শান্তি চাই। কিন্তু ফারুক সাহেব ক্ষমতায় আসার পর থেকেই সন্ত্রাস করছে। যদিও সভাপতি ওমর ফারুক হালদারের পাল্টা দাবিতে জানিয়েছেন যে তাঁরা ক্ষমতায় আসায় সালাম শাহরা মেনে নিতে পারেনি। তাই দলের নির্দেশ অমান্য করে বিভিন্ন ঝামেলা পাকাচ্ছে আর মামলা করছে। দুই গোষ্ঠীর নেতাই দাবি করেছেন, অঞ্চলের প্রতিটি বুথে প্রচুর অস্ত্র, বোমা মজুত রয়েছে।

*ছবিটি প্রতীকী

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!