এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বৈশাখীর সঙ্গে গোপন বৈঠক পার্থর, শোভনের তৃণমূলে ফেরার ইঙ্গিত! জোর জল্পনা

বৈশাখীর সঙ্গে গোপন বৈঠক পার্থর, শোভনের তৃণমূলে ফেরার ইঙ্গিত! জোর জল্পনা



 

এককালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ এবং গুডবুকে ছিলেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা বর্তমান বিজেপি নেতা শোভন চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা এবং বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা বেড়ে যাওয়ায় তৃণমূলের সঙ্গে দূরত্ব তৈরি হয় শোভনবাবুর। যার পরিপ্রেক্ষিতে পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে গিয়ে দাঁড়ায় যে, শেষপর্যন্ত দীর্ঘদিনের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সংসর্গ ত্যাগ করেন শোভন চট্টোপাধ্যায়।

গত বছরের 14 আগস্ট দিল্লিতে গিয়ে বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে সাথে নিয়ে বিজেপিতে নাম লেখান তিনি। কিন্তু বিজেপিতে নাম লিখিয়ে নিজের প্রাক্তন দল তৃণমূল কংগ্রেসকে বিপাকে ফেলার চেষ্টা করলেও, সেভাবে বিজেপিতে গুরুত্ব পাননি শোভন চট্টোপাধ্যায়। যার প্রথম এবং প্রধান কারণ, সেই বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় বলেই মনে পড়েছিল একাংশ। সেখানেও বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ অপেক্ষাকৃত কম গুরুত্ব দিয়ে শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের জুটিকে “ডাল-ভাত” বলে কটাক্ষ করেছিলেন। আর তারপর থেকেই বিজেপির সঙ্গে দূরত্ব তৈরি হতে শুরু করে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের।

সেভাবে গেরুয়া শিবিরের কোনো কর্মসূচিতে দেখা যায়নি তাকে এবং তার বান্ধবীকে। এদিকে এরপর পরিস্থিতির আবার পরিবর্তন হয়। গতবছর ভাইফোটার সময় বিজেপি নেতা হয়েও কালীঘাটে গিয়ে নিজের প্রাক্তন নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে ফোটা নিতে যান শোভন চট্টোপাধ্যায়। যার পরেই ফের জল্পনা তৈরি হয় যে, এবার হয়ত বা বিজেপিতে গুরুত্ব না পেয়ে আবার নিজের প্রাক্তন দল তৃণমূল কংগ্রেসে ফিরে যাচ্ছেন কলকাতা পৌরসভার প্রাক্তন মেয়র। কিন্তু সেরকম কোনো সিদ্ধান্ত নিতে দেখা যায়নি তাকে। উল্টে বিজেপিতে থেকেই নীরবে ছিলেন তিনি।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

বর্তমানে পৌরসভা নির্বাচনের দামামা বাজার আবাস পেয়ে শোভন চট্টোপাধ্যায়কে গুরুত্ব দেওয়ার কথা শোনা যাচ্ছে বিজেপি রাজ্য নেতৃত্বের গলায়। আর এই পরিস্থিতিতে তৃণমূল মহাসচিব তথা শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় রুদ্ধদ্বার বৈঠক তীব্র জল্পনার সৃষ্টি করল। সূত্রের খবর, মঙ্গলবার বেলা সাড়ে বারোটা নাগাদ পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নাকতলার বাড়িতে আসেন শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। আর রাজ্য রাজনীতির এই তাৎপর্যপূর্ণ মুহূর্তে হঠাৎ বৈশাখীদেবীর পার্থবাবুর বাড়িতে আগমন রীতিমত জল্পনা তৈরি করে সব মহলে।

কিন্তু ঠিক কি কারণে তিনি পার্থ চট্টোপাধ্যায় বাড়িতে এলেন! এদিন সেই ব্যাপারে বৈঠক থেকে বেরিয়ে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “কলেজের অধ্যক্ষ পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছিলাম। কিন্তু তা গৃহীত হয়নি বলে সরকারের বিভিন্ন দফতর থেকে আমার কাছে চিঠি যাচ্ছে। যা নিয়ে টানাপোড়েন তৈরি হয়েছে। আর সেই কারণেই বৈঠক।” অন্যদিকে একইভাবে এদিন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে রাজনীতি নিয়ে কোনো আলোচনাই হয়নি বলে জানিয়ে দিয়েছেন তৃণমূল মহাসচিব তথা শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু বাইরে তারা এক কথা বললেও, ভেতরে ঠিক কী আলোচনা হয়েছে তা জানেন না কেউই। কিন্তু দুই রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ব্যক্তির মধ্যে রাজনীতি নিয়ে আলোচনা হবে না, তা বিশ্বাস করতে নারাজ বিশ্লেষকেরা।

তবে এদিন পার্থবাবুর বাড়ি থেকে বেরিয়ে শোভনবাবুর রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ নিয়ে কিছুটা জল্পনা তৈরি করে দেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। বিজেপিতে কি শোভন চট্টোপাধ্যায় আবার সক্রিয় হবেন! এদিন এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “যখন কোনো খবর রাখে, তার পেছনে নিশ্চয়ই কিছু না কিছু কারন থাকে। বিজেপি নেতৃত্বের সঙ্গে কথা যে হয়নি, সেটা আমি বলব না। তবে কথা হওয়া মানেই সিদ্ধান্ত হয়ে যাওয়া নয়।” অন্যদিকে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের তৃণমূলে ফেরা নিয়ে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “শোভনদা তৃণমূলের নেতা ছিলেন, উনি পুরোনো দল করবেন কিনা, সেটা উনিই ঠিক করবেন।” কিন্তু শোভন চট্টোপাধ্যায় যদি তৃণমূলে আসেন, তাহলে কি কোনো অসুবিধা হবে!

এদিন এই প্রসঙ্গে শোভনবাবুর স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায় বলেন, “শোভনবাবুর এখন যা অবস্থা দাঁড়িয়েছে, তাতে তিনি তৃণমূলে এলেন কি না এলেন, তাতে দলের কিছু এসে যায় না।” তবে নানা মুনির নানা মতের মাঝে পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের দেড় ঘণ্টার রুদ্ধদ্বার বৈঠক এখন নানা জল্পনা তৈরি করছে রাজ্য রাজনীতিতে। এখন এই দুই হেভিওয়েটের বৈঠকের কোনো প্রভাব শোভন চট্টোপাধ্যায়ের রাজনৈতিক ক্যারিয়ারে পড়ে কিনা! সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!