এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ববিকে সরাতে চেষ্টা পার্থর! বিস্ফোরক দাবি হেভিওয়েট নেতার!

ববিকে সরাতে চেষ্টা পার্থর! বিস্ফোরক দাবি হেভিওয়েট নেতার!



তৃণমূলের নিচুতলা থেকে উপরতলা, নেতায়-নেতায় বনিবনা যে খুব একটা নেই, তা জানেন প্রত্যেকেই। কিন্তু দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের বিবাদের কথা কি জানেন তৃণমূলের ঘনিষ্ঠ মহল! না, এমনটা কখনও কোনোভাবেই আভাস পাওয়া যায়নি। তবে এবার আর আভাস পাওয়া নয়। একেবারে এই ব্যাপারে মন্তব্য করে শোরগোল তুলে দিলেন বিজেপির হেভিওয়েট নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার। বস্তুত, সম্প্রতি তৃণমূলের প্রাক্তন বিধায়ক তথা কলকাতা পৌরসভার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের একটি ছবি দিয়ে ফ্লেক্স শহরের বিভিন্ন প্রান্তে টাঙ্গানো হয়েছে।

যেখানে শোভন চট্টোপাধ্যায়কে রাজনীতির একদম সামনের সারিতে আসার আবেদন জানিয়েছে কলকাতার নাগরিকবৃন্দ। তবে সেই ফ্লেক্সে বিজেপির প্রতীক চিহ্নও দেখা গেছে। আর রাজনৈতিক মহলে যখন শোভন চট্টোপাধ্যায় আবার পৌরভোটে বিজেপির মুখে ময়দানে নামতে চলেছেন বলে জল্পনা ছড়িয়েছে, ঠিক তখনই শোভন চট্টোপাধ্যায় সক্রিয় হন বলেও মন্তব্য করতে দেখা গেছে তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়কেও। আর এই পরিস্থিতিতে কলকাতা পৌরসভার মেয়র ফিরহাদ হাকিমকে পার্থবাবু আর চাইছেন না।

তাই তাকে সরানোর চিন্তাভাবনা করছেন বলে তৃণমূলের অভ্যন্তরীণ কোন্দলকে বাড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেন জয়প্রকাশ মজুমদার বলে দাবি একাংশের। সূত্রের খবর, এদিন এই বিজেপি নেতা বলেন, “ফিরহাদ হাকিমের হাতে পড়ে কলকাতা পৌরসভা ডুবে গিয়েছে। নাগরিক পরিষেবা শেষ হয়ে গিয়েছে। কাজের সার্বিক পরিবেশ ধ্বংস হয়েছে। ফিরহাদ হাকিমের আগে সাড়ে আট বছর মেয়র হিসেবে কাজ চালিয়েছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়।” আর এরপরই পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মন্তব্যকে সামনে এনে ফিরহাদ হাকিমের সঙ্গে তার দূরত্ব বাড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন বিজেপির জয়প্রকাশ মজুমদার।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তিনি বলেন, “আমার মনে হয় কলকাতার মেয়রের পদ থেকে ফিরহাদ হাকিমকে সরাতে চান পার্থ চট্টোপাধ্যায়। কেননা বিজেপিতে থাকা এক নেতা সম্পর্কে তিনি কিভাবে বলেন যে, তিনি চান শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সক্রিয় রাজনীতিতে ফিরে আসুন।” কিন্তু সত্যিই কি শোভন চট্টোপাধ্যায় বিজেপির হয়ে ময়দানে নামবেন, নাকি তিনি নিষ্ক্রিয়ই থেকে যাবেন! এদিন এই প্রসঙ্গে জয়প্রকাশ মজুমদার বলেন, “শোভন চট্টোপাধ্যায় সক্রিয় থাকুন কিংবা নিষ্ক্রিয়, তিনি বিজেপিতেই আছেন। আর কবে তিনি রাজনীতিতে ফিরবেন, তা তার ব্যক্তিগত মতামত।”

তবে জয়প্রকাশ মজুমদারের এতসব মন্তব্যের মাঝেও পার্থ চট্টোপাধ্যায় ফিরহাদ হাকিমকে সরাতে চাইছেন বলে যে বিস্ফোরক কথা বললেন বিজেপির এই রাজ্য নেতা, তা নিঃসন্দেহে তাৎপর্যপূর্ণ বলেই দাবি বিশেষজ্ঞদের। তবে তৃণমূলের ভেতরকার কোন্দলকে বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য জয়প্রকাশবাবু কৌশল করে এই ধরনের মন্তব্য করার চেষ্টা করেছেন বলে মনে করছে একাংশ। এখন গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, তৃণমূল জয়প্রকাশ মজুমদারের মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে কোনো মন্তব্য করে কিনা, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!