এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > রক্তদানের দৈনতা স্পষ্ট খোদ স্বাস্থ্যভবনের উদ্যোগে, চরম অস্বস্তিতে রাজ্য সরকার

রক্তদানের দৈনতা স্পষ্ট খোদ স্বাস্থ্যভবনের উদ্যোগে, চরম অস্বস্তিতে রাজ্য সরকার



রাজ্য রক্তসুরক্ষা শাখা এদিন স্বাস্থ্যভবনে বেশ জাঁকজমক করে রক্তদাতা দিবস পালনের আয়োজন করেছিলো। কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবেই সেখানে মাত্র একজন স্বাস্থ্যকর্তা ও দু’-তিনজন কর্মী রক্তদান করলেন। এদিনের অনুষ্ঠানে মোট ১০০ জনের রক্তদান করার মতো আয়োজন থাকলেও দিনের শেষে দেখা যায় সেখানে রক্তদাতার সংখ্যা মাত্র ১৬ জন। যে স্বাস্থ্য দফতর সারা বছর সাধারণ মানুষজনকে রক্তদানের প্রয়োজনীয়তা এবং সুফল বিষয়ে সচেতন করে সেই দফতরের আধিকারিক এবং কর্মীদেরই রক্তদানে এত অনীহা স্বভাবিকভাবেই নানা মহলে নানা প্রশ্নের জন্ম দিচ্ছে। এদিন স্বাস্থ্যভবন চত্বরে বিশেষ রক্ত সংগ্রাহক গাড়ির ভিতরে রক্ত সংগ্রহের আয়োজন করা হয়েছিল।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

ব্লাড ব্যাঙ্কের কর্মীরা একটানা দু ঘন্টার বেশি সময় অপেক্ষা করলেও কোনো রক্তদাতার আর্বিভাব হয়নি। ফোন করেও অনেক কে ডাকা হয় বলে জানা যাচ্ছে। কিন্তু কারোরই সাড়া পাওয়া যায়নি। অবশেষে মাত্র ১৬ জন রক্তদান করেন যার মধ্যে ১১ জন কলেজ পড়ুয়া। ব্লাড ব্যাঙ্কের কর্মীরা এদিন রক্ত সংগ্রহের বহু খালি প্যাকেট নিয়েই দুপুরে ফিরে যান। সূত্রের মারফত জানা গিয়েছে, স্বাস্থ্যভবনে অন্য এক অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী ও আধিকারিকেরা। রক্তদান করতে অসম্মত এক স্বাস্থ্যকর্তার কথায়, ”ব্যস্ত ছিলাম। কখন রক্ত দেব!” নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক ‘স্টেট এইডস প্রিভেনশন কন্ট্রোল প্রোগ্রামে’র এক আধিকারিক বলেন, ”অনেককে রক্তদানের জন্য বলা হয়েছিল। কিন্তু কেন তাঁরা শিবিরে গেলেন না বলতে পারব না।” সমাজসেবার এনএসএস কোর্স করা ১১ জন রক্তদাতা এদিন রক্তদান করে এদিন স্বাস্থ্য দফতরের মুখ রক্ষা করলো বলে মনে করা হচ্ছে। স্বাস্থ্যকর্তা শম্ভুনাথ দে রক্তদান করলেও এই রক্তদানের অনুষ্ঠান সম্পর্কে তিনি কোনো প্রতিক্রিয়া জানাননি। তবে স্বাস্থ্যভবনের কর্মীদের রক্তদানের অনুষ্ঠানে বিমুখতা রক্তদানের আন্দোলনে যুক্ত একাধিক সংগঠনের কর্মকর্তাদের যে যথেষ্ট হতাশ করেছে তাতে সন্দেহ নেই।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!