এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বর্ধমান > বিজেপিতে যোগ দিতেই হেভিওয়েট তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে ভুরি ভুরি অভিযোগ, জোর বিতর্ক!

বিজেপিতে যোগ দিতেই হেভিওয়েট তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে ভুরি ভুরি অভিযোগ, জোর বিতর্ক!



অনুপম হাজরা থেকে নিশীথ প্রামাণিক, সৌমিত্র খাঁ থেকে বিপ্লব মিত্র অনেকেই অতীতে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। আর এই সমস্ত এককালের শাসক দলের হেভিওয়েট নেতারা বিজেপিতে যোগ দেওয়ার সাথে সাথেই তাদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলতে দেখা গেছে তৃণমূল কংগ্রেসকে। আর তৃণমূলের এই অভিযোগের কেন্দ্রবিন্দু থেকে বাদ ছিলেন না স্বয়ং মুকুল রায়ও। এই সমস্ত হেভিওয়েট নেতারা এককালে তৃণমূলে থাকলেও, তাঁদের বিরুদ্ধে কোনো অপরাধমূলক ঘটনার অভিযোগ ওঠেনি। কিন্তু যেই তাঁরা শিবির পরিবর্তন করলেই তৎক্ষণাৎ তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা বা অপরাধমূলক ঘটনার সঙ্গে তাঁদের নাম জড়িয়ে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ বিজেপির।

আর এবার সেই একই ঘটনা ঘটল আসানসোলের হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা কৃষ্ণেন্দু মুখোপাধ্যায়ের বিজেপিতে যোগদানের পর। বস্তুত, শুক্রবার বিজেপির রাজ্য দপ্তরে এসে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেন কৃষ্ণেন্দুবাবু। আর এরপরই এখন তাঁর বিরুদ্ধে বেশ কিছু অভিযোগ নিয়ে ময়দানে নেমে পড়েছে তাঁরই প্রাক্তন দল তৃণমূল কংগ্রেস। শাসক দলের দাবি, কৃষ্ণেন্দু মুখোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বেশ কিছু থানায় অভিযোগ রয়েছে। যেখানে তোলা চেয়ে ঠিকাদারকে মারধর, ব্যবসায়ীকে অপহরণ করে তোলা চাওয়া, জবরদখল সহ একাধিক অভিযোগ তুলে ধরে বিজেপিতে যোগ দেওয়া এই নেতাকে কোণঠাসা করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে তৃণমূল কংগ্রেস। আর এখানেই উঠছে নানা প্রশ্ন।

কেননা এতদিন কৃষ্ণেন্দুবাবু তৃণমূলে থাকলেও তৃণমূল তাঁকে দুধে-ভাতে রেখেছিল। কিন্তু এবার সেই তিনিই ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগ দেওয়ার সাথে সাথেই কেন তাঁর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ তুলে সরব হচ্ছে তৃনমূল কংগ্রেস! কেন তাহলে তাঁরা এতদিন কৃষ্ণেন্দুবাবুর বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকলেও, নীরবে-নিভৃতে ছিল! তাহলে কি শাসক দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়াই অপরাধ হল কৃষ্ণেন্দু মুখোপাধ্যায়ের! এদিন এই প্রসঙ্গে জেলা তৃণমূলের সভাপতি জিতেন্দ্র তিওয়ারি বলেন, “নানা অপরাধে অভিযুক্ত অপরাধীদের মত লোকজনকে নিয়ে চলতে বিজেপি অভ্যস্ত।”

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে তৃণমূলের তোলা এই দাবিকে সম্পূর্ণরূপে উড়িয়ে দিয়েছে বিজেপি নেতৃত্ব। এদিন এই প্রসঙ্গে জেলা বিজেপির সাধারণ সম্পাদক দিলীপ দে বলেন, “কৃষ্ণেন্দুবাবু অনেকদিন ধরেই আমাদের দলে যোগ দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। তাই তৃণমূল ভয় পেয়েছে এবং তাঁর বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যা মামলা সাজানো হয়েছে।” তবে এই ব্যাপারে অবশ্য জেলা তৃণমূলের সভাপতি জিতেন্দ্র তিওয়ারি বলেন, “কৃষ্ণেন্দুবাবুর অপকর্ম প্রকাশ পেতেই তাকে দল থেকে বের করে দেওয়া হয়েছিল।” তাহলে কি সত্যিই তিনি এই সমস্ত অপকর্মের সঙ্গে জড়িত ছিলেন!

কি বলছেন সেই কৃষ্ণেন্দু মুখোপাধ্যায়! এদিন তিনি বলেন, “তৃণমূল ছেড়ে দেওয়ার জন্যই আমার নামে মিথ্যা মামলা করা হয়েছে। এখন আমার লক্ষ্য, এলাকায় বিজেপির সংগঠনকে মজবুত করা।” তবে যে যাই বলুন না কেন, বিশেষজ্ঞদের একাংশ বলছেন, অতীতে এমন নজির রয়েছে যে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার সাথে সাথেই অনেক প্রাক্তন তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে মামলা হতে দেখা গেছে। ফলে যার পরিপ্রেক্ষিতে শাসকের প্রতিহিংসা পরায়ন আচরণকেই বড় করে দেখেছে একাংশ। আর এবারে আসানসোলের হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা কৃষ্ণেন্দু মুখোপাধ্যায় বিজেপিতে যোগদান করায় তৃণমূল বিপাকে পড়েছে। আর তাই তাকে চাপে রাখতেই তার বিরুদ্ধে মামলার জুজু দেখাচ্ছে শাসকবর্গ বলে দাবি সমালোচকদের। এখন গোটা পরিস্থিতি কোন দিকে মোড় নেয়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!