এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > বিজেপির সুরে কথা বলতেই শিশিরকে কড়া কটাক্ষ পার্থর, শোরগোল শাসকদলে!

বিজেপির সুরে কথা বলতেই শিশিরকে কড়া কটাক্ষ পার্থর, শোরগোল শাসকদলে!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – অধিকারী পরিবারের অন্যতম সদস্য শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করার পরবর্তী সময়কালে তার পরিবারের বাকি সদস্যদের রাজনৈতিক পদক্ষেপকে কেন্দ্র করে তৈরি হয় জল্পনা। কিন্তু নানা জল্পনা-কল্পনা চললেও এখনও পর্যন্ত তৃণমূল কংগ্রেসেই রয়েছেন শিশির অধিকারী। তবে রামনবমীর মধ্যেই তার পরিবারের বাকি সদস্যরা তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেবেন বলে কিছুদিন আগেই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। আর এই পরিস্থিতিতে বেশ কিছুদিন আগেই শিশির অধিকারীকে যে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি পদ থেকে সরিয়ে দিয়ে তাকে জেলা তৃণমূলের চেয়ারম্যান করা হয়।

আর এরপরেই তৃণমূল আগেভাগে খবর পেয়ে শিশির অধিকারী এবং অধিকারী পরিবারের সব থেকে বড় সদস্যের ডানা ছাটতে শুরু করল বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। স্বাভাবিকভাবেই নির্বাচনের দামামা বাজার পর আজ ছেলেকে আক্রমণ করা নিয়ে মুখ খুলেছেন শিশির অধিকারী। যেখানে তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন তিনি। আর এই পরিস্থিতিতে এবার সেই শিশির অধিকারীকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

সূত্রের খবর, এদিন এই প্রসঙ্গে শিশির অধিকারীকে কটাক্ষ করেছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন  “শিশিরদা প্রবীণ মানুষ। সবাই বুঝতে পারছেন ওঁর হৃদয় কোথায়, আর শরীর কোথায়? আগে সেটা ঠিক করে নিন। তিনি যে দু’পা বাড়িয়েই রয়েছেন, সেটা তাঁর বক্তব্যেই প্রমাণিত।” অর্থাৎ পার্থ চট্টোপাধ্যায় এই মন্তব্যের মধ্যে দিয়ে বুঝিয়ে দিলেন যে, শিশির অধিকারীর বিজেপিতে যোগ দেওয়া শুধু সময়ের অপেক্ষা। তাই নির্বাচনের মুখে তিনি এখনও পর্যন্ত বিজেপিতে যোগ না দিলেও যেভাবে ছেলে শুভেন্দু অধিকারীর পক্ষ নিয়ে কথা বলে সরব হলেন, তাতে তৃণমূল যে বিন্দুমাত্র ভাবিত নয়, তা বুঝিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেন পার্থবাবু বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

বিশ্লেষকরা বলছেন, শুভেন্দু অধিকারীর মত পরিপক্ক রাজনীতিবিদ তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করার পরেই আলোড়ন তৈরি হয়েছিল অধিকারী পরিবারে। শিশির অধিকারী এবং তার দুই ছেলে তৃণমূল কংগ্রেসেই থাকার কথা জানিয়ে দেন। কিন্তু কিছুদিনের মধ্যেই শিশিরবাবুর এক ছেলে সৌমেন্দু অধিকারীকে যোগ দিতে দেখা যায় ভারতীয় জনতা পার্টিতে। তবে এখনও পর্যন্ত শিশিরবাবু এবং তার আর এক ছেলে দিব্যেন্দু অধিকারী তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ।

দীর্ঘদিন ধরেই তাদের দলের কোনো কর্মসূচিতে দেখা যাচ্ছে না। আর এই পরিস্থিতিতে তারা বিজেপিতে যোগদান করতে পারেন বলে জল্পনা ছড়িয়ে পড়েছিল। আর এদিন শুভেন্দু অধিকারীর পক্ষ নিয়ে শিশির অধিকারী তৃণমূলের বিরুদ্ধে কথা বলার পরেই রীতিমত চিন্তা বাড়তে শুরু করেছে ঘাসফুল শিবিরের। আর এমত পরিস্থিতিতে শিশিরবাবুর অস্বস্তি বাড়িয়ে তিনি বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে শুরু করেছেন বলে পরোক্ষে বুঝিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেন তৃণমূল মহাসচিব। আর পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের এই মন্তব্যে এখন শিশির অধিকারীর সঙ্গে তৃণমূলের দূরত্ব আরও প্রকট হয়ে উঠবে বলেই দাবি করছেন বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!