এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > বিজেপির রথযাত্রা ইস্যুতে অনুব্রত মন্ডলের বিস্ফোরক মন্তব্য- তীব্র জল্পনা রাজনৈতিক মহলে

বিজেপির রথযাত্রা ইস্যুতে অনুব্রত মন্ডলের বিস্ফোরক মন্তব্য- তীব্র জল্পনা রাজনৈতিক মহলে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনকে মাথায় রেখে ইতিমধ্যেই বাংলার মসনদ দখল করতে গেরুয়া শিবির নেমে পড়েছে ময়দানে প্রচার চালাতে। তারা শুরু করতে চলেছে রাজ্যজুড়ে রথযাত্রা। তবে এই রথযাত্রায় আপত্তি ওঠায় গেরুয়া শিবির তাঁদের রথ যাত্রার নাম পরিবর্তন করে দিয়েছে পরিবর্তন যাত্রায়। যদিও এখনো পর্যন্ত এই রথযাত্রায় প্রশাসনিক অনুমতি পাওয়া নিয়ে প্রশ্ন থাকছে। তবে গেরুয়া শিবিরের পক্ষ থেকে স্পষ্ট করে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, প্রশাসনের অনুমতি না পাওয়া গেলেও রথযাত্রা কোনমতেই আটকাবে না। আর এবার রথযাত্রা নিয়ে গেরুয়া শিবিরকে রীতিমত চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলেন বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল।

কড়া হুঁশিয়ারি দিয়ে এদিন তিনি জানিয়েছেন, সবার নাচের পর তিনি খেলা দেখাবেন। প্রসঙ্গত, ‘খেলা হবে’ শব্দবন্ধটি এবারের বিধানসভা নির্বাচনে অন্যতম প্রচার শব্দ হয়ে উঠেছে। পাশাপাশি নাগরিকত্ব আইন নিয়েও বিজেপিকে চড়া সুরে আক্রমণ করেছেন অনুব্রত। প্রসঙ্গত, আগামী শনিবার নবদ্বীপ থেকে কেন্দ্রীয় বিজেপি সভাপতি জেপি নাড্ডা রথযাত্রার সূচনা করতে চলেছেন। রাজ্যের মোট পাঁচটি জায়গা থেকে গেরুয়া শিবিরের এই পরিবর্তন রথযাত্রা বের হবার কথা। 294 টি বিধানসভা কেন্দ্র ছুঁয়ে যাবে এই পাঁচটি রথযাত্রা। নবদ্বীপ থেকেই প্রথম সূচনা হবে রথযাত্রার। সেক্ষেত্রে ওখানকার রথের নাম দেওয়া হয়েছে ‘চৈতন্যচেতনা রথ’।

বিজেপি সূত্রের খবর, ‘চৈতন্যচেতনা রথ’ 18 দিন ধরে বিভিন্ন স্থান পরিক্রমা করবে। প্রত্যেক বিধানসভায় 15 থেকে 20 দিন থাকবে বলে জানা গিয়েছে। প্রসঙ্গত, জেপি নাড্ডা ছাড়াও উত্তরের রথ টানতে আসতে চলেছেন আগামী দিনে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। পাশাপাশি বীরভূমেও রথযাত্রার সূচনা হবার কথা জেপি নাড্ডার হাত ধরে। আর সেই প্রসঙ্গে রীতিমতো বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন অনুব্রত মণ্ডল। বিজেপির রথযাত্রা নিয়ে অনুব্রত মণ্ডল এদিন বিস্ফোরক মন্তব্য করে বলেন, বর্তমানে সবাই নাচবে এবং তিনি শুধু দেখবেন।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এরপর খেলা শুরু করবেন তিনি এবং বাকিরা দেখবে। খুব স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠেছে রাজনৈতিক মহলে, কিসের খেলা দেখাবেন অনুব্রত মণ্ডল?গত কয়েকদিন আগে অনুব্রত মণ্ডলকে এই খেলা নিয়েই আক্রমণ করেছিলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি তৃণমূলকে এক হাত নিয়ে বলেন, এবারের নির্বাচনে তৃণমূল সাইড বেঞ্চে বসে থাকবে। মাঠে খেলবে কিন্তু বিজেপি। অন্যদিকে নাগরিকত্ব আইন ইস্যুতে বীরভূম তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল এদিন স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছেন, এ রাজ্যের মানুষ মেনে নেবে না সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন।

বিশেষজ্ঞ মহলের দাবি, সময় যত যাচ্ছে ততই ঘনিয়ে উঠছে রাজ্যের প্রধান দুই যুযুধান রাজনৈতিক শিবির বিজেপি এবং তৃণমূলের লড়াই। আর সেক্ষেত্রে রথযাত্রা যে অন্যতম রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের কারণ হয়ে উঠছে তা বলাইবাহুল্য। পাশাপাশি ‘খেলা হবে’ বলে অনুব্রত মণ্ডল কি ইঙ্গিত করেছেন তা নিয়ে এই মুহূর্তে রাজনৈতিক মহলে তীব্র চর্চা। সবমিলিয়ে বোঝাই যাচ্ছে, বাংলার বুকে এই মুহূর্তে জমে উঠেছে একুশের বিধানসভা নির্বাচনের লড়াই।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!