এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বিজেপির ঘুম ওড়াতে বিধানসভার আগে হাসপাতালে শুয়েও নিজের মত ঘুঁটি সাজিয়ে যাচ্ছেন হেভিওয়েট নেতা

বিজেপির ঘুম ওড়াতে বিধানসভার আগে হাসপাতালে শুয়েও নিজের মত ঘুঁটি সাজিয়ে যাচ্ছেন হেভিওয়েট নেতা



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – সামনেই বিহার বিধানসভার নির্বাচন। কিন্তু এবারের নির্বাচনে সশরীরে ভোট ময়দানে থাকতে পারছেন না লালুপ্রসাদ যাদব। স্বাভাবিক ভাবেই বিহার বিধানসভার নির্বাচনে তার এইভাবে অনুপস্থিতি নানা মহলে গুঞ্জন তৈরি করছে। জানা গেছে, পশুখাদ্য কেলেঙ্কারিতে দোষী সাব্যস্ত থাকায় এখন জেলবন্দি লালুপ্রসাদ যাদব। বর্তমানে অসুস্থ রয়েছেন তিনি। রাচির রিমস হাসপাতাল ভর্তি রয়েছেন। আর সেখানেই দলীয় প্রার্থীদের সম্পর্কে খোঁজখবর নিতে দেখা যাচ্ছে তাকে।

আর হাসপাতালে শুয়ে লালুপ্রসাদ যাদবের এই উদ্যোগকে কেন্দ্র করে নানা মহলে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। জানা গেছে, বিহার বিধানসভা নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার জন্য আরজেডির কাছে প্রায় 5 হাজার আবেদনপত্র জমা পড়েছিল। আর সেগুলো খতিয়ে দেখেই চূড়ান্ত তালিকা তৈরি করেছেন লালুপ্রসাদ যাদব। অর্থাৎ জেলবন্দি হয়ে হাসপাতালে শুয়েই বিহার বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির ঘুম উড়িয়ে দিতে তৎপরতা অবলম্বন করতে দেখা যাচ্ছে হেভিওয়েট এই নেতাকে।

সূত্রের খবর, বুধবার আরজেডির পক্ষ থেকে বিহার বিধানসভা নির্বাচনের জন্য প্রথম প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। যেখানে নাম রয়েছে 42 জন প্রার্থীর। লালুপ্রসাদ যাদবের ছেলে তেজস্বী যাদব দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিলেও, জেলবন্দি থাকা লালুপ্রসাদ যাদব সমস্ত ঘুটি সাজাচ্ছেন। আর তার হস্তক্ষেপেই প্রার্থী তালিকা তৈরি করা হয়েছে। অর্থাৎ তিনি জেলবন্দি হয়ে অসুস্থ অবস্থায় থাকলেও, বিহার বিধানসভা নির্বাচনের দিকে যে তার নজর রয়েছে, সেই বিষয়টি নিশ্চিত বিশেষজ্ঞদের কাছে।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তবে বাইরের এত বিষয় সম্পর্কে কিভাবে নজর রাখছেন লালুপ্রসাদ যাদব, এখন তা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছে বিরোধীরা। তাদের বক্তব্য, লালুপ্রসাদ যাদব  ঝাড়খন্ডের  একটি  হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।  যেখানে  সরকার  চালাচ্ছে  কংগ্রেস  এবং জেএমএম জোট। আর বিহারে লালুপ্রসাদ যাদবের দলের সঙ্গে কংগ্রেসের জোট রয়েছে। তাই আরজেডিকে সুবিধা করে দিতেই সেখানে লালুপ্রসাদ যাদবকে বাড়তি সুবিধা পাইয়ে দেওয়া হচ্ছে বলে দাবি একাংশের।

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা বলছেন, জেলবন্দি থাকলেও লালু প্রসাদ যাদব কোনোমতেই চাইছেন না, এবার বিজেপিকে বাড়তি কোনো সুবিধা পাইয়ে দিতে। তাই জেলে থেকেই দলের সমস্ত বিষয়ের দিকে নজর রাখছেন তিনি। স্বাভাবিকভাবেই তার মত হেভিওয়েট নেতা যেভাবে শ্রীঘরে থেকেও, বিজেপির অস্বস্তি বাড়িয়ে দিতে দলের প্রার্থী নির্বাচন থেকে শুরু করে কিভাবে প্রচার চালাতে হবে সমস্ত বিষয়ে অবহিত করছেন। দলকে জেতাতে সশরীরে না থেকেও লালু প্রসাদ যাদব যে কার্যত রিমোট কন্ট্রোল হয়ে রয়েছেন, সেই বিষয়টি নিশ্চিত বিশেষজ্ঞদের কাছে। তবে জেলবন্দি থাকা অবস্থায় লালুপ্রসাদ যাদব বিজেপি এবং নীতীশ কুমারের অস্বস্তি কতটা বাড়িয়ে দিতে পারেন, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!