এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ২০১৯-এ বিজেপির আসন নেমে আসবে ১০০ তে, ‘ভয়ঙ্কর ভবিষ্যৎবাণী’ এই কেন্দ্রীয় নেতার

২০১৯-এ বিজেপির আসন নেমে আসবে ১০০ তে, ‘ভয়ঙ্কর ভবিষ্যৎবাণী’ এই কেন্দ্রীয় নেতার



উত্তর পূর্ব ভারতের তিন রাজ্যে জয়লাভ করলেও বিহার ও উত্তরপ্রদেশের লোকসভা ও বিধাসভা উপনির্বাচনে শোচনীয় পরাজয় হয় বিজেপির। আর এই ফলাফলের পরে বিজেপির একদা শরিক শিবসেনা চুড়ান্তভাবে কটাক্ষ করলো বিজেপিকে। শিবসেনার মুখপাত্র সামনা(মারাঠি) এবং দোপহর কি সামনা( হিন্দি) – এই দুই সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে দাবি করেন, যদি বর্তমান উপনির্বাচনের ধারা চলতে থাকে, তাহলে ২০১৯-এর নির্বাচনে বিজেপি ১০০ থেকে ১১০টি আসন পাবে। যদিও বিজেপির তরফে পরাজয়ের কারন ব্যাখ্যা করে বলা হয়েছে উপনির্বাচনে দেশের সমস্ত মানুষের নির্বাচন ঘিরে তৈরী হওয়া উৎসাহ, উদ্দীপনা সম্পূর্ণভাবে অনুধাবন করা সম্ভব নয়।

কিন্তু পরিসংখ্যান বিচার করলে দেখা যাচ্ছে নরেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে মোট ১৯ টি ও নিজেদের জেতা ১০ টি লোকসভা আসনের উপনির্বাচনে পরাজিত হয়েছে বিজেপি। যার ফলে লোকসভায় বিজেপির আসন সংখ্যা ২৮২ থেকে কমে হয়ে গিয়েছে ২৭২। ২০১৪ র লোকসভা নির্বাচনে জয় লাভ বিষয়ে শিবসেনা মুখপাত্র উদ্ধব ঠাকরে জানালেন, ২০১৪ সালে স্রোতের জলে জনগণের চোখ বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। যার ফলে বিজেপি জয়লাভ করে। কিন্তু এখন স্রোত কমায় জনগণ সব কিছু পরিষ্কার দেখতে পাচ্ছে। অন্যদিকে ত্রিপুরায় বামদের ২৫ বছরের শাসনের অবসান ঘটিয়ে বিজেপির ঐতিহাসিক জয় প্রসঙ্গে তিনি জানান, কংগ্রেস ও তৃণমূলের পুরো ভোট গিয়েছে বিজেপির ঝুলিতে।। উল্টোদিকে উত্তর প্রদেশের গোরক্ষপুর এবং ফুলপুরে উপনির্বাচনে সমাজবাদী পার্টির জয়ের কারণ ব্যাখ্যা করে তিনি জানান, দুই আসনেই মানুষ চেয়েছে বিজেপিকে পরাস্ত করতে। কেননা ২০১৪ সালে দুই আসনেই বিজেপি জিতেছিল ২ থেকে ৩ লক্ষ ভোটে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!