এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বিজেপির আতঙ্কেই কি রাজ্যে বাড়ছে গনেশ পুজো জোর বিতর্ক

বিজেপির আতঙ্কেই কি রাজ্যে বাড়ছে গনেশ পুজো জোর বিতর্ক



বাঙালির বারো মাসের তেরো পার্বনের মধ্যে অন্যতম গনেশ পুজো। এবার এই পুজোকেই হাতিয়ার করে লোকসভা ভোটের আগে রাজ্যবাসীর সঙ্গে সুসম্পর্ক তৈরি করার উদ্যোগ নিয়েছে রাজ্যের শাসকদল। হিসাব বলছে,গতবছরের তুলনায় এবছরের পুজোর সংখ্যা বেড়েছে তিনশোটি। অর্থাৎ গত বছর মোট তেরোশোটি প্যান্ডেলে গনেশ পুজো হয়েছিল। এবছর তা বেড়ে হয়েছে ষোলোশো। এবং এইসব পুজো সম্পন্ন হচ্ছে তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতাদের মদতে। কম করে পঞ্চাশটি করে পুজো প্যান্ডেলের উদ্বোধণের দায়িত্ব পালন করেছেন বিভিন্ন তৃণমূলের প্রভাবশালী নেতারা। খোদ মদন মিত্রই প্রায় ছশোটি পুজোর সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন।

রাজনৈতিক সূত্রের খবর থেকে আরো জানা গিয়েছে,তৃণমূলের এক কাউন্সিলার সুভাষচন্দ্র বসুর উদ্যোগেই কোলকাতার বুকে সবথেকে উঁচু গনেশ পুজো হচ্ছে তেঘড়িয়ায়। প্রায় ৩০ ফুট উঁচু পুজোর জন্য খচরের বহরও রয়েছে সেরকম। পুজোর জন্য বাইরে থেকে আনা হচ্ছে ঢাকিদের। মদন মিত্রের সঙ্গে পাল্লা দিতে বিধাননগরের মেয়র সব্যসাচী দত্তও নেমে গেছেন একই ময়দানে। তবে মানুষের সঙ্গে জনসংযোগ বাড়াতেই নাকি এই পুজো করছেন,এমনটাই দাবীতে জানিয়েছেন। পাঁচ বছর ধরে নাকি তিনি গনেশ পুজোর সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন, বক্তব্যে এমনটাই জানালেন তিনি।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

কোলকাতায় সবথেকে ধুমধামে পালিত হয় বাঙালির শ্রেষ্ট উৎসব দুর্গা পুজো। এ পুজো উপলক্ষ্যেই খরচা করা হয় সবথেকে বেশি টাকা। প্রায় তিন হাজারের কাছাকাছি দুর্গা পুজোর প্যান্ডেল তৈরি হয় শুধু কোলকাতাতেই। এ বছর দুর্গোৎসবের আয়োজন এবং খরচাপাতিকেই টেক্কা দিচ্ছে গনেশ পুজো। আর এই পুজোয় সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন তৃণমূলের বাঘা বাঘা ব্যক্তিত্বরা। তবে বিরোধীমহল থেকে প্রশ্ন উঠছে এবছরই কেন এতো পুজো করা ঘটা? বিজেপির ভয়েই কি কোনঠাসা হয়ে তৃণমূল গনেশ পুজোর মন দিয়েছে? প্রশ্নের সাথে সাথে এ নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। গুঞ্জন শুরু হয়েছে রাজ্য রাজনৈতিকমহলে। তবে সমস্ত বিতর্ক এড়াতে মদন মিত্র বক্তব্যে জানালেন,গেরুয়ার বাহিনীর চাপে নয়,বহুদিন ধরেই এই পুজোর সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন তাঁরা। আর এই পুজোর সঙ্গে রাজনীতির কোনো যোগাযোগ নেই।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!