এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বিজেপি ও তৃণমূলকে একসাথে বিঁধলেন মহম্মদ সেলিম

বিজেপি ও তৃণমূলকে একসাথে বিঁধলেন মহম্মদ সেলিম



সিপিএমের হতশ্রী দশা`লুকানো গেলো না সভাতেও। ছাত্র, যুব, শ্রমিক ও মহিলা, দলের চারটি প্রধান শাখাতেই নেতৃত্ব ও সদস্যের ঘাটতি নিয়ে রিপোর্টেও সেই করুন অবস্থা ধারা পড়েছে। যার ফলে হতাশা বেড়ে গেছে সিপিআইএম এর অন্দরে। তবে সেই হতাশা দূর করতে মাঠে নেমেছেন সিপিআইএম এর তাবড় নেতারা। এদিন মালদহ জেলা সম্মেলনে কিন্তু তবুও বিজেপি ও তৃণমূলকে বিঁধতে ছাড়লেন না মহম্মদ সেলিম ।এদিন সভা মঞ্চ থেকে তিনি কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকারের দিকে অভিযোগের তোপ দেগে বললেন,একজন সব জায়গায় ‘আধার’ সংযুক্তকরণে ব্যস্ত আর অন্যজন রাজ্যের ‘উধার’ বাড়াতে ব্যস্ত।

এদিন সভা থেকে মহম্মদ সেলিম বিজেপি সরকারের আধার সংযুক্তকরণের প্রসঙ্গ তুলে বললেন,কোনো উপযুক্ত পরিকাঠামো ছাড়াই কেন্দ্রের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে আধার নম্বর লিংক না করলে কোনো অত্যাবশকীয় পরিষেবা পাওয়া যাবে না।আর এইটাই হলো বিজেপি সরকারের আচ্ছে দিনের প্রতিশ্রুতি।অন্যদিকে তিনি শাসকদলের ধার নেওয়ার প্রসঙ্গ তুলে বললেন,তৃণমূল সুপ্রিমো আবার রাজ্যের পক্ষ থেকে নেওয়া ধার পরিমান দিন দিন বাড়িয়ে গোটা রাজ্যকে ঋণগ্রস্ত করে উৎসবে মেতে রয়েছেন।

পাশাপাশি এদিন সিপিএমের প্রাক্তন সংসদ সদস্য তথা রাজ্য নেতা মইনুল হাসান গোটা দেশে চলা সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার প্রসঙ্গ তুললেন। দলের মালদহ জেলার বিদায়ী জেলা সম্পাদক অম্বর মিত্র বললেন এ জেলায় আমরা বিধানসভায় বিপুল সাফল্য পেয়েছি। আর তৃণমূল পঞ্চায়েতে মাত্র ছয়টি আসন দিয়ে আজ জবরদখল করে জেলা পরিষদ চালাচ্ছে।সভায় তেমন ভিড় না দেখে নেতৃত্ব হতাশ হলেও কর্মী সমর্থকরা বেশ কিছুটা হলেও অক্সিজেন পেয়েছে বলে মনে করছে সিপিআইএম। যা তাদের আগে লড়তে সাহায্য করবে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!