এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বড়সড় অস্বস্তিতে পড়ল বিজেপি এবং তৃণমূল! জেনে নিন বিস্তারিত!

বড়সড় অস্বস্তিতে পড়ল বিজেপি এবং তৃণমূল! জেনে নিন বিস্তারিত!



 

প্রায় প্রতিনিয়তই রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিবাদ তৈরি হয় বিরোধী দল ভারতীয় জনতা পার্টির। তবে রাজনীতির ময়দানে এই বিবাদ সকলে উপভোগ করলেও, আদালত সেই বিবাদের জায়গা নয়, তা জানেন প্রত্যেকেই। কিন্তু তা সত্ত্বেও রাজ্যের একটি ইস্যু নিয়ে মামলা হওয়ার কারণে সওয়াল, পাল্টা সওয়াল করতে গিয়ে সেই আদালতকেই রাজনৈতিক বিবাদের কারখানা হিসেবে পরিণত করলেন দুই পক্ষের আইনজীবীরা। যার ফলস্বরূপ দুই পক্ষের আইনজীবীকেই কড়া ভৎসনা করলেন বিচারপতি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময় রাজ্যে একাধিক বিজেপি কর্মীর রহস্য মৃত্যু ঘটেছিল। আর এর পরেই বিজেপির তরফে এই নিয়ে নানা অভিযোগ করা হলেও, রাজ্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল যে, মৃত্যু নয়, এটা আত্মহত্যা। কিন্তু তা সত্ত্বেও, দলীয় কর্মীদের এহেন মৃত্যুতে তৃণমূলের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ করে ভারতীয় জনতা পার্টি।

এমনকি বাংলার বিজেপি নেতৃত্বের তরফে এই ব্যাপারে সুপ্রিম কোর্টে একটি মামলাও দায়ের করা হয়। সেইমত সোমবার এই মামলার শুনানির সময় রাজ্য সরকার এবং বিজেপির আইনজীবীকে কড়া ভাষায় ভৎসনা করলেন প্রধান বিচারপতি শরদ অরবিন্দ বোবদে।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

সূত্রের খবর, এদিন দুপুরে আদালতে শুনানি চলার সময় বিজেপির আইনজীবী গৌরব ভাটিয়া দাবি করেন, পশ্চিমবঙ্গে রাজনৈতিক কারণে অনেক বিজেপি কর্মীকে খুন করা হয়েছে। আর এরপরই তার এই দাবির বিরোধিতা করে একটি রাজনৈতিক দল কিভাবে জনস্বার্থ মামলা করতে পারে! তা নিয়ে পাল্টা প্রশ্ন তোলেন রাজ্য সরকারের আইনজীবী কপিল সিব্বল। আর দু পক্ষের আইনজীবীর তরজা চরমে ওঠার পর এই নিয়ে উষ্মা প্রকাশ করেন আদালতের প্রধান বিচারপতি।

যেখানে নিজের ক্ষোভ উগরে দিয়ে তিনি বলেন, “আমরা খুব ভাল করে জানি যে, দু’পক্ষই আদালতকে রাজনৈতিক স্কোর বাড়ানোর জন্য ব্যবহার করছে। কিন্তু খুব ভাল করে মনে রাখবেন যে, এটা আপনাদের রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব মেটানোর জায়গা নয়। এর থেকে ভালো হয়, আপনারা দুজনেই টিভি চ্যানেলে গিয়ে নিজেদের রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের মীমাংসা করুন।”

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিভিন্ন সময়ে রাজনৈতিক ঘটনা নিয়ে আদালতে শাসক-বিরোধী দু পক্ষের আইনজীবীর তরজা লক্ষ্য করা যায়। আর এবার এই ঘটনা আদালতে ঘটায়, প্রধান বিচারপতির ক্ষোভের মুখে যেভাবে বিজেপি এবং রাজ্য সরকারের আইনজীবী পড়লেন, তাতে তারা দু’পক্ষই অত্যন্ত ব্যাকফুটে চলে গেল বলে মত একাংশের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!