এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > বিজেপি সাংসদের বেফাঁস মন্তব্যে সরব তৃণমূল সাংসদ

বিজেপি সাংসদের বেফাঁস মন্তব্যে সরব তৃণমূল সাংসদ



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – উত্তরপ্রদেশের হাথরাসে দলিত তরুণীর গণধর্ষণের ঘটনায় প্রতিবাদ মুখরিত সারা দেশ। উত্তরপ্রদেশের যোগী সরকার সহ সমগ্র বিজেপিকে অভিযুক্তের কাঠগড়ায় তুলেছে দেশের একাধিক বিরোধী দল। যা নিয়ে প্রবল চাপের মুখে কেন্দ্রীয় শাসকদল বিজেপি। গত শনিবার হাথরাসের এই ঘটনা প্রসঙ্গে এক বিতর্কিত মন্তব্য করে দলকে আরও বিপদে ফেলে দিলেন হুগলির বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়।

গত শনিবার কাটোয়া থানার অন্তর্গত দাঁইহাটের মাকালতোড়ে বিজেপির একটি বিশেষ দলীয় কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছিল। বৈঠক শেষ করার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেছিলেন হুগলির বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। সাংবাদিকদের সেদিন তিনি হাথরাস গণধর্ষণ কাণ্ডের বিষয়ে তাঁর বক্তব্য প্রকাশ করতে গিয়ে বলেছিলেন, ” যোগীজির উপর ভরসা আছে উনি নিশ্চয়ই ধর্ষিতা, নির্যাতিতার পরিবারের সদস্যদের শাস্তি দেবেন মুখ্যমন্ত্রী।”

অসতর্কতাবশত এমন মন্তব্য করার পর তিনি নিজের অনিচ্ছাকৃত ভুলের জন্য ক্ষমা চেয়ে নিয়েছিলেন। কিন্তু তার আগেই তাঁর এই বেফাঁস মন্তব্য খুব দ্রুত সোশ্যাল-মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে পড়ে। নেটিজেনরা বারবার তাঁকে কটাক্ষ করতে শুরু করে তাঁর এই বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তাঁকে নিয়ে ব্যঙ্গ ও সমালোচনার সুযোগ হারালেন না তৃণমূল সাংসদ নুসরত। এরূপ মন্তব্যের জন্য তাঁকে বিশেষভাবে ব্যঙ্গ ও কটাক্ষ করতে দেখা গেল নুসরতকে। প্রসঙ্গত হাথরাস গণধর্ষণকাণ্ডে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে নিয়েও ইতিপূর্বে বিরূপ মন্তব্য করেছিলেন তৃণমূল সাংসদ নুসরত। গত শনিবার সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে টুইট করে তিনি আবার লেখেন যে, বিজেপি মানেই চূড়ান্ত কাপুরুষের একটি দল। যে বিপুল সংখ্যক দলিত ও মহিলারা নির্যাতিত হয়েছেন তাঁর শাসনকালে, তা প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে লুকিয়ে রাখা অসম্ভব। এরসঙ্গেই তিনি জানান যে, কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তাঁরা আমৃত্যু লড়াই চালিয়ে যাবেন।

সেদিন সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে ‘বিগেস্ট প্যানডেমিক বিজেপি’ (#BiggestPandemicBJP) হ্যাশট্যাগ দিয়ে বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে তাঁকে লিখতে দেখা যায়, ” নারী হিসেবে এক নারীকে বলছি, লকেটদি সুবিচার সম্পর্কে আপনার ধারণা ভুল। ধর্ষিতার পরিবারের শাস্তি! এখনও পর্যন্ত আমার শোনা সবচেয়ে হাস্যকর সমাধান। একজন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি হিসেবে এই বিষয়ে আপনার মানসিকতা বিপজ্জনক।”

 

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!