এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > তৃণমূল এখন গরু, ছাগলে ভর্তি! আমার ছবি নিয়ে নোংরামো করেছে! বিস্ফোরক বিজেপি সাংসদ পত্নী

তৃণমূল এখন গরু, ছাগলে ভর্তি! আমার ছবি নিয়ে নোংরামো করেছে! বিস্ফোরক বিজেপি সাংসদ পত্নী



করোনা ভাইরাসের জন্য গোটা দেশ লকডাউন। অন্য জায়গায় যাওয়া তো দূর অস্ত, নিজের বাড়ি থেকেই বের হতে পারছেন না সাধারণ মানুষ। কেননা করোনা ভাইরাস আটকাতে গেলে সামাজিক দূরত্ব অবলম্বন করা বাধ্যতামূলক। আর তার কারণেই এই লকডাউনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে সরকার। তবে এই লকডাউনের মধ্যেই বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁর স্ত্রী সুজাতা খাকে দেখা গেছে বিমানে যাত্রা করতে।

সম্প্রতি তাঁর একটি ফেসবুক পোস্ট ঘিরে চরম বিতর্ক ছড়ায়। যেখানে তৃণমূলের পক্ষ থেকে সেই পোস্ট শেয়ার করে বিজেপি সাংসদের স্ত্রীর কড়া ভাষায় সমালোচনা করা হয়। যার ফলে অস্বস্তিতে পড়েন সেই বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ এবং তার স্ত্রী সুজাতা খাঁ। এতদিন এই ব্যাপারে সুজাতাদেবী কিছু না বললেও, এবার মুখ খুলে তৃণমূলকে “গরু ছাগলের দল” বলে কটাক্ষ করলেন বিজেপি সাংসদ পত্নী।

সূত্রের খবর, এদিন তিনি বলেন, “আমার ছবি নিয়ে তৃণমূল নোংরামো করেছে। ছবিতে কোথাও লেখা নেই কবেকার ছবি এটা। ছবিতে রয়েছে, বাড়ি ফেরার মজাই আলাদা। দা সিটি অফ জয়। দিল্লি ও কলকাতায় আমি বাস করি। তাই দুই শহরকে ভালোবাসা জানিয়ে আমি লাভ সাইন দিয়েছিলাম। আমি বাড়িকে মিস করছিলাম বলে পোস্ট করেছিলাম।”


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

আর এরপরই তার ছবি এভাবে তৃণমূলের পক্ষ থেকে পোস্ট করা নিয়ে তৃণমূলকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন সুজাতা খাঁ। তিনি বলেন, “তৃণমূল সরকার এবং তাদের পোষা গুন্ডারা এবং তৃণমূলে থাকা অন্য গরু-ছাগলেরা ছবিটিকে নিয়ে ট্রোল করেছে। আমাকে তৃণমূলের তরফে অশ্লীল আক্রমণ করা হয়েছে। যদি ক্ষমতা থাকে তো ফেক প্রোফাইল থেকে না করে আমার সামনে আসুক। মানুষকে অন্ধকারে রেখে আমার সৎ ইমেজে কালি ছেঁটাচ্ছে তৃণমূল। কিন্তু এক্ষেত্রে পুলিশ নিষ্ক্রিয়।” আর এরপরই নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তুলনা করে তৃণমূল নেত্রীকে তুলোধোনা করেন বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ স্ত্রী।

তিনি বলেন, “তৃণমূলের মনে রাখা উচিত আমি যে দলটা করি, তা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চালান না। দলটা চালান নরেন্দ্র মোদী। পরিযায়ী শ্রমিকরা যেমন দেশের বিভিন্ন জায়গায় আটকে রয়েছেন, ঠিক তেমনই আমি বাড়ি থেকে 2 হাজার কিলোমিটার দূরে আটকে রয়েছি। আটকে রয়েছেন সৌমিত্র খাঁ। সেখান থেকেই আমরা মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছি।”

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এতদিন লকডাউনের মুহূর্তে সুজাতাদেবীর সেই ছবিকে কেন্দ্র করে তীব্র বিতর্ক ছড়িয়ে পড়েছিল। যার ফলে ব্যাকফুটে পড়তে হয়েছিল বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁকেও। কিন্তু এবার এই ব্যাপারে মুখ খুলে তারা দিল্লিতেই রয়েছেন জানিয়ে তৃণমূলকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করে রীতিমত শোরগোল তুলে দিলেন সুজাতা খাঁ। এখন গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, তার দিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!