এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > পাশকুড়ার পন্থাই অনুসরণ করা হল ময়নায়, বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে জারি করা হল হুলিয়া!

পাশকুড়ার পন্থাই অনুসরণ করা হল ময়নায়, বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে জারি করা হল হুলিয়া!



 

এবার পাঁশকুড়ার ঘটনার প্রতিচ্ছবিই দেখা গেল ময়না এলাকায়। গত 7 অক্টোবর পাঁশকুড়ায় খুন হয়েছিলেন তৃণমূল নেতা কুরবান শা। আর এরপরই সেই খুনের ঘটনায় জড়িত বিজেপি নেতা আনিসুর রহমান সহ বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তবে অভিযুক্তদের দুজনের বিরুদ্ধে আত্মসমর্পণের জন্য আদালতের পক্ষ থেকে হুলিয়া জারি করা হয়েছিল।

আর এবার পাঁশকুড়ায় যেভাবে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে হুলিয়া জারি করা হয়েছিল, ঠিক একইভাবে ময়নায় তৃণমূল নেতা খুনে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে জারি করা হল হুলিয়া। জানা গেছে, গত 14 অক্টোবর বাকচার বরুনা গ্রামের বাসিন্দা তথা প্রাক্তন তৃণমূলের পঞ্চায়েত সদস্য বাসুদেব মন্ডল মেয়ের বাড়ি থেকে মোটরসাইকেলে করে বাড়ি ফিরছিলেন। অভিযোগ, ফেরার পথে আন্ধারিয়া গ্রামের কাছে রাস্তায় তাকে কুপিয়ে খুন করা হয়।

আর এরপরই এই ঘটনায় সেই মৃত তৃণমূল নেতা বসুদেব মন্ডলের পরিবারের তরফ থেকে অভিযোগের আঙুল ওঠে বিজেপির নেতা কর্মীদের বিরুদ্ধে। যেখানে সেই নিহত তৃণমূল নেতার স্ত্রী বিজেপির মন্ডল সভাপতি অলোক বেড়া সহ 19 জন বিজেপি নেতা কর্মীদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

ইতিমধ্যেই পুলিশের তরফ থেকে সেই তালিকায় থাকা পাঁচ জন এবং আরও 6 জন বিজেপি কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে তালিকায় অন্তর্ভুক্ত 13 জন অভিযুক্তকে এখনও পর্যন্ত পুলিশ গ্রেপ্তার করতে পারেনি। তাই এই পরিস্থিতিতে সেই তৃণমূল নেতা খুনে অভিযুক্ত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার করার জন্য তাদের বিরুদ্ধে হুলিয়া জারি করতে দেখা গেল আদালতকে।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে, এদিন পুলিশের আবেদনের ভিত্তিতে অভিযুক্তদের পলাতক হিসেবে ঘোষণা করে তাদের বিরুদ্ধে হুলিয়া জারি করেছেন পূর্ব মেদিনীপুর জেলা আদালতের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট। আর পাঁশকুড়ায় তৃণমূল নেতা খুনের পর অভিযুক্তদের ধরতে যেভাবে হুলিয়া জারি করা হয়েছিল, ঠিক একই কায়দা ময়নাতেও অনুসরণ করা হল বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

যদিও বা বিজেপি নেতা কর্মীদের বিরুদ্ধে আদালতে হুলিয়া জারি করলেও, এর সঙ্গে বিজেপি যুক্ত নয় বলে জানিয়ে দিয়েছে গেরুয়া শিবির। এদিন এই প্রসঙ্গে জেলা বিজেপির সহ-সভাপতি আশিস মণ্ডল বলেন, “বসুদেব খুনের ঘটনায় জড়িয়ে বাকচা এলাকার আমাদের অনেক নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করেছে তৃণমূল। পুলিশ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যেই আমাদের কর্মীদের গ্রেফতার করছে। দলের মন্ডল সভাপতি সহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে হুলিয়া জারির ব্যবস্থা করেছে।”

তবে বিজেপি এই দাবি করলেও, তা মানতে নারাজ তৃণমূল কংগ্রেস। তাদের পাল্টা দাবি, এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত ভারতীয় জনতা পার্টি। এদিন এই প্রসঙ্গে ময়না ব্লক তৃণমূল সভাপতি সুব্রত মালাকার বলেন, “বসুদেব খুনের ঘটনায় বিজেপির নেতা কর্মীরা প্রত্যক্ষভাবে জড়িত। নিহতের পরিবার পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন। পুলিশ আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিয়েছে।” তবে যে যাই বলুন না কেন, পাঁশকুড়ার পর ময়নায় তৃণমূল নেতা খুনে আদালতের হুলিয়া জারির পরিপ্রেক্ষিতে, এখন কবে সেই অভিযুক্তরা ধরা পড়ে! সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!