এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > মুখ্যমন্ত্রীর ডিলিট প্রাপ্তির সমর্থনে মুখ খুলে জল্পনা বাড়ালেন দাপুটে বিজেপি নেতা

মুখ্যমন্ত্রীর ডিলিট প্রাপ্তির সমর্থনে মুখ খুলে জল্পনা বাড়ালেন দাপুটে বিজেপি নেতা



দুদিন আগেই কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাম্মানিক ডিলিট উপাধি পান পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু এই ডিলিট প্রাপ্তি নিয়ে ঝড় ওঠে বিরোধী মহলে। বামফ্রন্ট, বিজেপি বা কংগ্রেস, প্রধান তিন বিরোধী পক্ষের কেউই মুখ্যমন্ত্রীর এই ডিলিট প্রাপ্তিকে স্বাগত জানায়নি। দিলীপ ঘোষ থেকে সুজন চক্রবর্তী, বিমান বসু থেকে অধীর চৌধুরী – সকলেই মুখ্যমন্ত্রীর এই ডিলিট প্রাপ্তিকে তীব্র কটাক্ষে ভরিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু দলীয় মতের উল্টোপথে হেঁটে সবাইকে অবাক করে দিয়েছেন দাপুটে বিজেপি নেতা রাজ্য বিজেপির প্রাক্তন মুখপাত্র কৃশানু মিত্র।
মুখ্যমন্ত্রীর ডিলিট প্রাপ্তিতে এর আগে মুখ খোলেন আরেক বিরোধী নেতা কংগ্রেসের ওমপ্রকাশ মিশ্র। তাঁর বক্তব্যের জের টেনেই গত বিধানসভা নির্বাচনে কামারহাটি থেকে মদন মিত্রের বিরুদ্ধে বিজেপির টিকিটে লড়া কৃশানু মিত্র বলেন, ফেসবুকে কংগ্রেস নেতা ওমপ্রকাশ মিশ্রর বক্তব্যকে সমর্থন আমি করছি, শুধুমাত্র রাজনীতির জন্য রাজনীতি করা উচিত নয়। প্রসঙ্গত, অধ্যাপক ওমপ্রকাশ মিশ্র সোশ্যাল মিডিয়ায় এর আগে জানান, দীর্ঘদিনের এমপি, কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর দায়িত্ব সামলানোর পর গত ছবছর ধরে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী রয়েছেন মমতা। তাঁকে এই সম্মান দেওয়া নিয়ে অপ্রয়োজনীয় বিতর্ক আমি মানছি না। প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়কে যদি সম্মান জ্ঞাপন করা যেতে পারে, তা হলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কেন দেওয়া হবে না ডিলিট? বিভিন্ন ক্ষেত্রে রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠতে হয়, এটা রাজনীতির ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হওয়া উচিত। যেখানে স্বয়ং বিজেপির রাজ্য সভাপতি মুখ্যমন্ত্রীর এই ডিলিট প্রাপ্তিতে সরব হয়েছেন সেখানে কৃশানুবাবু এইভাবে মুখ্যমন্ত্রীর সমর্থনে প্রকাশ্যে মুখ খোলায় জল্পনা তীব্র হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!