এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > দল থেকে বহিষ্কৃত “মুকুল রায়ের লোক” বিজেপি নেতা, শোরগোল রাজ্যে

দল থেকে বহিষ্কৃত “মুকুল রায়ের লোক” বিজেপি নেতা, শোরগোল রাজ্যে



লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির ভালো ফলাফল হওয়ার পরই শাসক দল থেকে একাধিক নেতাকর্মী গেরুয়া শিবিরে নাম লাগাতে শুরু করেন। যার জেরে বিজেপির অন্দরে নব্য বনাম আদির দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে আসতে থাকে। সেই রকমই গত শনিবার জলপাইগুড়ির ময়নাগুড়িতে ধর্মপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের 5 জন সদস্য তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে এসেছিলেন‌।

কিন্তু এতদিন যারা তৃণমূল থেকে কাটমানি খেতেন, তাদেরই কেন দলে ঢোকানো হল, তা নিয়ে সেই পঞ্চায়েতের সামনেই এদিন বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে দেখা যায় বিজেপির কর্মী সমর্থকদের। গেরুয়া শিবিরের পুরনো নেতাকর্মীদের দাবি, নতুন বিজেপিতে যোগ দেওয়া তৃণমূল নেতা শিবশঙ্কর দত্তকে বহিষ্কার করতে হবে।

এদিকে এই ঘটনাতেই এখন তীব্র বিপাকে পড়েছে বিজেপি নেতৃত্ব। প্রসঙ্গত, বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময় তৃণমূলে ছিলেন সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া শিবশঙ্কর দত্ত। তবে সেসময় তিনি তার দলবল নিয়ে বিজেপিতে যোগ দিলে এই গ্রাম পঞ্চায়েতের 13 টির মধ্যে 6 টি আসনে জয়লাভ করে গেরুয়া শিবির।

অন্যদিকে সাতটি আসনে জিতে এখানে বোর্ড গঠন করে তৃণমূল। তবে তৃণমূলের থাকা সেই 7 জনের মধ্যে 5 জন বিজেপিতে যোগ দিলে গেরুয়া শিবিরের মধ্যে তীব্র দ্বন্দ্ব তৈরি হয়। কেন একসময় তৃণমূলে থাকা নেতাকর্মীরা দুর্নীতি করে এবার বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেন বিজেপির পুরনো কর্মীরা। তারই অঙ্গ হিসেবে এদিন সেই শিবশংকর দত্তের অনুগামীরা নতুন ভাবে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার সেই কর্মী-সমর্থকদের যাতে না নেওয়া হয়, তার জন্য প্রবল বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তাদের দাবি, বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের ঘনিষ্ঠ বলে পরিচয় দিয়ে দলে যোগ দেওয়া কিছু নেতা কাটমানি খাচ্ছেন। তবে এই প্রসঙ্গে শিবশঙ্কর দত্তের বিরুদ্ধে পাল্টা তোপ দেগেছেন জেলা বিজেপি সভাপতি দেবাশিস চক্রবর্তী। এদিন তিনি বলেন, “শিবশংকর দত্তের দলের সদস্য পদ আছে কিনা জানি না। ওর সঙ্গে দলের কোনো যোগাযোগ নেই। কিছু লোক ব্লকে ব্লকে স্বঘোষিত বিজেপি নেতা হয়েছেন। এদের বিরুদ্ধে কাটমানি খাওয়ার টাকা নিয়ে দলে বেনোজল ঢোকানোর অভিযোগ রয়েছে। এই নেতাদের চিহ্নিত করার কাজ শুরু হয়েছে।”

অন্যদিকে এই প্রসঙ্গে শিবশঙ্কর দত্ত বলেন, “আমি প্রকাশ্যেই বলি মুকুল রায় আমার নেতা। এতদিন তৃণমূলের হয়ে প্রধান সহ যে সদস্যেরা কাটমানি খেয়েছে বলে বাসিন্দারা অভিযোগ করছে, তাদেরই দলে আনা হয়েছে। এটা দলের নীতি বিরুদ্ধ কাজ।”

অন্যদিকে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে তার নাম জড়ানো প্রসঙ্গে মুকুল রায় বলেন, “প্রথমত কোথাকার ঘটনা জানি না। দ্বিতীয়ত, কে আমার লোক তাও জানি না। তাই এনিয়ে আমি কিছু বলব না।” সব মিলিয়ে এবার নব্য বনাম আদির দ্বন্দ্বে উত্তপ্ত গেরুয়া শিবিরের অন্দরমহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!