এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > বিজেপি করার অপরাধে কর্মীকে বড়সড় হিসেব দিতে হলো,অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

বিজেপি করার অপরাধে কর্মীকে বড়সড় হিসেব দিতে হলো,অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – রাজ্য জুড়ে চলছে বাংলার ক্ষমতা দখলের লড়াই। আর সেই লড়াইয়ের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত শুধুমাত্র রাজনৈতিক হিংসার ছবি উঠে আসছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। হুগলি জেলার বিধানসভার নির্বাচন হয়ে গেছে আগেই, কিন্তু ভোট পরবর্তী হিংসার নজির দেখল বাংলার আরামবাগ জেলা।

এক ব্যক্তির বিজেপি করার অভিযোগে শুধুমাত্র বিজেপি করার অভিযোগে তাঁর চাষের জমির ফসল নষ্ট করে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। খুব স্বাভাবিকভাবে এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ‘বদলার রাজনীতি’ শব্দটি আবার শোনা যাচ্ছে। যদিও তৃণমূলের পক্ষ থেকে তাঁদের দিকে তোলা অভিযোগের আঙুল রাখলেও তাঁদের পক্ষ থেকে পাল্টা এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে।

সূত্রের খবর, রবিবার রাতে আরামবাগ রংপুর অঞ্চলের পূর্ব হরিপুর গ্রামের কৃষক তথা বিজেপি সমর্থক অমলেন্দু ঘোষের বেশ কয়েক বিঘা জমির ফসল নষ্ট করে দেওয়া হয়। প্রসঙ্গত, ওই জমিতে তরমুজ বানানো হয়েছিল এবং এই ঘটনার পেছনে তৃণমূলের জড়িত থাকার অভিযোগ তোলা হয়েছে বিজেপির পক্ষ থেকে।

তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। জানা যাচ্ছে, ভোটের পর থেকেই আরামবাগ এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা রয়েছে। এমনকি ওই এলাকায় বিজেপি কর্মীদের ভোটপর্বের শেষে মারধোর করা হচ্ছে বলেও শোনা যাচ্ছে। এদিন অমলেন্দু ঘোষ সকালে তাঁর জমিতে গিয়ে সমস্ত ফসল নষ্ট অবস্থায় দেখেন।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

যথারীতি এই ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়তেই এলাকাজুড়ে তীব্র উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। তবে পরিস্থিতি হাতের বাইরে যাওয়ার আগেই আরামবাগ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। অন্যদিকে এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপি সমর্থক অমলেন্দু ঘোষ জানিয়েছেন, তাঁকে বেশ কিছুদিন যাবৎ হুমকি দেওয়া হচ্ছিল স্থানীয় তৃণমূলের পক্ষ থেকে।

অন্যদিকে স্থানীয় তৃণমূল নেতা স্বপন নন্দী এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি আবার পাল্টা জানিয়েছেন, কে বা কারা ফসল নষ্ট করেছে তা না জেনেই শুধু শুধু তৃণমূলের দিকে অভিযোগ করে পরিস্থিতি অশান্ত করার চেষ্টা চলছে বিজেপির পক্ষ থেকে।

এই ঘটনা প্রসঙ্গে স্থানীয় তৃণমূল নেতারা বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের দিকে ইঙ্গিত করেছেন। পাল্টা বিজেপির পক্ষ থেকে এই ঘটোনার পরিপ্রেক্ষিতে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এবারের নির্বাচন শুরু থেকেই মূলত তৃণমূল এবং বিজেপির লড়াই দেখা গিয়েছে জায়গা বিশেষে দুই দলের মধ্যে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়েছে।

আরামবাগ এলাকায় ভোটের সময়েও দেখা দিয়েছে ব্যাপক উত্তেজনা দুই শিবিরের মধ্যে। যথারীতি ভোট পরবর্তীকালে এই উত্তেজনা যে বৃদ্ধি পাবে সে কথা খুব স্বাভাবিক। তবে আরামবাগের ঘটনায় এখনো পর্যন্ত দোষী সাব্যস্ত করা যায়নি কাউকে। তাই তদন্তের গতিমুখ কোন দিকে মোড় নেয় সে দিকেই নজর সবার।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!