এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বিজেপি-জুজুতে ‘ইউ-টার্ন’ কেজরিওয়ালের,ক্ষমতা ধরে রাখতে চরম শত্রুর সঙ্গে সন্ধির পথে

বিজেপি-জুজুতে ‘ইউ-টার্ন’ কেজরিওয়ালের,ক্ষমতা ধরে রাখতে চরম শত্রুর সঙ্গে সন্ধির পথে



কথায় আছে “শত্রুর শত্রু আমার বন্ধু”। বিজেপি বিরোধীতাকে কেন্দ্র করে নিজেদের মধ্যে সমস্ত বিবাদকে মিটিয়ে নিয়ে এক হচ্ছে দেশের সমসত বিজেপি বিরোধী দলগুলো।সম্প্রতি দেখা গেছে উত্তরপ্রদেশে চরম বিপরীত দুই মেরুর মায়াবতী ও অখিলেশের জোটে নাস্তানাবুদ হয়েছে বিজেপি।এবার প্রতিটা রাজ্যে এই মডেলকেই অনুসরন করেই চলতে চাইছেন তাঁরা।বিশেষ সূত্রে খবর, বিজেপি বিরোধীতাকে কেন্দ্র করে গোবলয়ের এই রাজনৈতিক সমঝোতা এবার দেখতে পাবে দিল্লীও।
রাজনৈতিক মহলের ধারনা,বিরোধীদের এই জোট ফর্মুলা যদি অটুট থাকে তবে 2019 এর লোকসভায় ক্ষমতায় আসা মুশকিল বিজেপির।
সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুর ও ফুলপুরের দুটি লোকসভার আসন বিজেপির হাত থেকে ছিনিয়ে নেয় সমাজবাদী ও বহুজন সমাজবাদী পার্টি।আঞ্চলিক দলগুলির এই জোটের ফলে কর্নাটক সহ দেশে হয়ে যাওয়া সম্প্রতি একাধিক লোকসভা ও বিধানসভায় বিজেপিকে হটিয়ে সাফল্যের মুখও দেখেছে তাঁরা।
এবারে সেই ফর্মুলাকে কাজে লাগিয়ে দিল্লীতে একছাতার তলায় আসতে চাইছে কংগ্রেস ও আম আদমি পার্টি।এ প্রসঙ্গে কংগ্রেস নেতা অজয় মাকেন ও আপ নেতা উভয়েই ট্যুইটকরে জানান,দু দলের শীর্ষ নেতারাই জোট নিয়ে আলোচনা শুরু করেছেন। এখানেই অনেকের জল্পনা, তবে কি দিল্লীতেও জোট ফর্মুলাকে কাজে লাগিয়ে ক্ষমতায় আসতে চাইছে কংগ্রেস।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

উল্লেখ্য,2014 য় দিল্লীতে সাতটি আসনে জয় পেয়েছিল বিজেপি।রাজনৈতিক মহলের মতে,দুই দলের মধ্যের এই জোট হলে আমূল পাল্টে যেতে পারে ফলাফল।কিন্তু এ নিয়ে বিস্তর আশঙ্কার মেঘও দেখছেন তাঁরা।কারন এই কংগ্রেসরই বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষনা করে একসময় মুখ্যমন্ত্রী হন কেজরিওয়াল।কাজেই এক্ষেত্রে তিনি বাধা হলেও হতে পারেন।অনেকে আবাল এও মনে করছেন, এ নিয়ে বেশি টালবাহানাও করবেন না আম আদমির নেতারা।বিজেপিকে ঠেকাতে ও নিজের দলকে আসরে নামাতে এই চেষ্টা ছাড়া আর কোনো উপায়ই নেই কেজরিওয়ালের।এমনিতেই তাঁর দলের একাধিক মন্ত্রী ও বিধায়ক বর্তমানে ফেঁসে রয়েছেন দুর্নীতির দায়ে।
রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের ধারনা,2019 এর লোকসভায় ভালো ফল না হলে প্রবল অস্তিত্ব সঙ্কটে পড়তে হতে পারে “আম আদমি” র কেজরিওয়ালকে।আবার অন্যদিকে জোট হলে বিরোধী ভোট ভাগ না হওয়ায় ভাগ্য খূলবে কংগ্রেসের।যার ফলে বিজেপি পিছিয়ে পড়বে অনেকটাই।
এবার রাজধানী দিল্লীতে যদি কংগ্রেস-আপ এর এই জোট হয় এবং তাতে যদি ঐক্যের সুর বজায় থাকে ,তাহলে ভবিষ্যতে বিজেপিকে অনেকটাই চাপে ফেলতে পারে এই বিরোধী জোট-এমনটাই মত ওয়াকিবহাল মহলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!