এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > জোট ভাঙার খেসারত দিতে হল বিজেপিকে, জোর শোরগোল !

জোট ভাঙার খেসারত দিতে হল বিজেপিকে, জোর শোরগোল !



মহারাষ্ট্রে এবার খুব একটা ভালো ফল করতে পারেনি ভারতীয় জনতা পার্টি। যার পরেই শরিক দল শিবসেনা থাকার জন্য তারা জোট করে এখানে সরকার গড়তে পারবে বলে আশা করেছিল পদ্ম শিবির। কিন্তু শেষ পর্যন্ত মন্ত্রিত্বের ফর্মুলা দেওয়া শিবসেনার প্রস্তাব বিজেপি না মানায়, দুই দলের মধ্যে সম্পর্কে ফাটল ধরেছিল। যার পরিপ্রেক্ষিতে শেষ পর্যন্ত এখানে সরকার গড়েছিল শিবসেনা, কংগ্রেস এবং এনসিপি জোট।

কিন্তু একাংশ বলছিলেন, মহারাষ্ট্রে বিজেপি যেভাবে জোট ছেড়ে বেরিয়ে এল, তাতে তাকে ভবিষ্যতে মাসুল দিতে হতে পারে। অবশেষে চলে এল সেই সময়। সূত্রের খবর, এবার মহারাষ্ট্রের নাগপুর জেলা পরিষদের নির্বাচনে কার্যত মুখ থুবড়ে পড়ল ভারতীয় জনতা পার্টি। যেখানে দীর্ঘদিন ধরে ক্ষমতায় থাকা বিজেপিকে সরিয়ে সেই জেলা পরিষদের ক্ষমতা নিজেদের দখলে নিল জাতীয় কংগ্রেস।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

প্রসঙ্গত, গত 7 জানুয়ারি 58 আসনবিশিষ্ট এই নাগপুর জেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। বুধবার সেখানে ভোট গণনা ছিল। আর সেই ফলাফলেই দেখা যায় কংগ্রেস 31, এনসিপি 10 এবং বিজেপি 14 টি আসনে জয়লাভ করেছে। একইভাবে পঞ্চায়েত সমিতিতেও হারের মুখ দেখতে হয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টিকে। জানা যায়, কংগ্রেসের মহেন্দ্র ডোংড়ে 9444 ভোট পেলেও, বিজেপির মারুতি সোমকুবেরের বাক্সে পেয়েছেন মাত্র 5501 টি ভোট। আর মহারাষ্ট্রে শিবসেনা এবং বিজেপির জোট ভেঙে যাওয়ার পর, বিজেপি এতটা খারাপফল করায় রীতিমতো চিন্তার ভাঁজ পড়েছে গেরুয়া শিবিরের অন্দরমহলে।

একাংশ বলছেন, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা নীতিন গড়কড়ির খাসতালুকে বিজেপির এই হার নিঃসন্দেহে গেরুয়া শিবিরের কাছে প্রবল চিন্তার কারণ। তাহলে কি মহারাষ্ট্রে সেইরূপ প্রভাব নেই বিজেপি? এতদিন কি শিবসেনার প্রভাবেই তারা শক্তিশালী হয়েছিল! নানা মহলে যখন এই প্রশ্ন উঠছে, ঠিক তখন গেরুয়া শিবিরের পদক্ষেপ কি হয়! সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!