এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বিজেপিতে যোগদান প্রসঙ্গে দলীয় কর্মী-সমর্থকদের ‘বড়সড়’ বার্তা দিলেন প্রাক্তন হেভিওয়েট মন্ত্রী

বিজেপিতে যোগদান প্রসঙ্গে দলীয় কর্মী-সমর্থকদের ‘বড়সড়’ বার্তা দিলেন প্রাক্তন হেভিওয়েট মন্ত্রী



রাজ্যের একসময়কার মুখ্যমন্ত্রী অজয় মুখোপাধ্যায় তাঁর দলকেই কটাক্ষ করে বলেছিলেন যে, “চোর তাড়াতে বাংলার মানুষ ডাকাত এনেছে।” কালের অমোঘ নিয়মে এবার সেই কথাই শোনা গেল রাজ্যের বিগত বাম সরকারের প্রাক্তন মন্ত্রী সুশান্ত ঘোষের গলায়। তবে এক্ষেত্রে পুরোটাই আলাদা পরিস্থিতিতে নিজের এই বক্তব্যকে উপস্থাপিত করেছেন রাজ্যের এই প্রাক্তন মন্ত্রী।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এবারে বিভিন্ন পঞ্চায়েতে তৃনমূলকে ঠেকাতে বিজেপির সাথে একজোট হয়ে বোর্ড গঠন করেছে বামেরা। জঙ্গলমহলের গোপীবল্লভপুর, ঝাড়গ্রামের মানিকপাড়ায় এইরকমই কিছু দৃশ্য দেখা গেছে। আর যা নিয়ে প্রবল অস্বস্তিতে পড়েছে আলিমুদ্দিন স্ট্রীট।

কেননা, রাজ্যে তৃনমূল তাঁদের প্রবল বিরোধী হলে কেন্দ্রে তাঁদের বিরোধী বিজেপি। আর সেই চরম শত্রু বিজেপির সাথেই অনেক পঞ্চায়েতে বোর্ড গঠন করায় ব্যাকফুটে চলে যাওয়া সিপিএমকে নিজের বক্তব্যের মধ্যে দিয়ে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করলেন সুশান্ত ঘোষ। সূত্রের খবর, গত রবিবার ডিওয়াইএফের ঝাড়গ্রাম জেলা সম্মেলনে গোপীবল্লভপুরের যাত্রা ময়দানে উপস্থিত হয়ে সুশান্ত ঘোষ বলেন, “আমরা ক্ষমতায় থাকাকালীন সকলের আশা পূরন করতে পারিনি। কিন্তু এখন ক্ষমতায় থাকতে রাজ্যের শাসকদল সবরকম অন্যায় করছে। তাই এই চোর শাসককে তাড়াতে কখনই কেন্দ্রের ডাকাত শাসকের খপ্পরে কেউ পড়বেন না।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

রাজনৈতিক মহলের মতে, রাজ্যের বাম নেতা সুশান্ত ঘোষের এই মন্তব্য বড়ই সময়োপযোগী। একদিকে রাজ্য আর অপরদিকে কেন্দ্র এই দুইয়ের বিরোধীতা করে নিজেদের ধর্মনিরপেক্ষ শক্তি হিসাবে তুলে ধরা সিপিএমকে এদিন নিজের বক্তব্যের মাধ্যমে এক কদম এগিয়ে দিলেন বিগত সরকারের এই প্রাক্তন মন্ত্রী।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!