এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > রাজ্যের হেভিওয়েট নেতাদের দলত্যাগ, বন্ধ হল বিজেপির পার্টি অফিস !

রাজ্যের হেভিওয়েট নেতাদের দলত্যাগ, বন্ধ হল বিজেপির পার্টি অফিস !



গত লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গে তৃণমূলের অস্বস্তিকে অনেকটাই বাড়িয়ে দিয়েছিল ভারতীয় জনতা পার্টি। উত্তরবঙ্গের আটটি লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যে সাতটি লোকসভা কেন্দ্র দখল’ করে তৃণমূলের কার্যত চ্যালেঞ্জ ছুড়ে ছিল গেরুয়া শিবির। ক্ষমতায় আসার পর যে পাহাড়ে অশান্তি কমিয়ে সেখানকার মানুষের মুখে হাসি ফুটিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সেই পাহাড়বাসী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই তাদের সমর্থন দেবেন বলে মনে করেছিল রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

কিন্তু সেই সমস্ত কিছুকে মিথ্যে করে দিয়ে গত 2019 এর লোকসভা নির্বাচনে পাহাড়ে পদ্মফুল ফুটিয়েছিলেন সেখানকার মানুষ। তবে লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি দার্জিলিং লোকসভা কেন্দ্র দখল করলেও বর্তমানে বাংলায় গেরুয়া শিবিরের পরিস্থিতি খুব একটা ভালো নয়। তৃণমূলের পক্ষ থেকে এনআরসি, এনপিআর এবং সিএএ বিরোধী প্রচারে কার্যত কোণঠাসা পদ্ম শিবিরের নেতারা। দিকে দিকে বিজেপি ছাড়ার হিড়িক পড়ে গেছে। আর এবার সেই ফাটলটি লক্ষ্য করা গেল দার্জিলিংয়েও।

সূত্রের খবর, এদিন দার্জিলিংয়ের সুখিয়াপোখরিতে প্রায় একশটি পরিবার বিজেপি ছেড়ে বিনয় তামাংয়ের হাত ধরে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চাতে নাম লেখান। আর পৌরসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে যখন বিজেপি একতাবদ্ধ হয়ে লড়াই করার চেষ্টা করছে, তখন শৈল শহরের প্রচুর কর্মী সমর্থকদের বিজেপি ছাড়ার ঘটনা যে গেরুয়া শিবিরকে প্রবল অস্বস্তিতে ফেলবে, তা বুঝতে বাকি নেই কারোরই।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এদিন স্থানীয় কমিউনিটি হলে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিজেপিত্যাগী এই সদস্যদের হাতে দলের পতাকা তুলে দেন মোর্চা সভাপতি বিনয় তামাং। আর বিজেপির এই ব্যাপক সদস্যরা দলত্যাগ সাথে সাথেই এলাকায় অবস্থিত বিজেপির একটিমাত্র কার্যালয় বন্ধ হয়ে যায় বলে খবর। এদিন এই প্রসঙ্গে বিনয় তামাং বলেন, “বিজেপির কারণে মানুষ আতঙ্কে রয়েছেন। নাম বাদ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা। বিজেপির কাজে পাহাড়ের মানুষ একেবারে বিরক্ত হয়ে উঠেছে। সেই কারণে মোর্চাতে বিজেপি কর্মীরা নাম লিখিয়েছেন।”

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এনআরসি নিয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে তৃণমূলের যে প্রচার, তা অনেকটাই লাভবান হয়েছে। আর তার ফলে এবার গত লোকসভা নির্বাচনে পাহাড়ের বিজেপি ভালো ফল করলেও এবার যে তাদের ক্রেজ নষ্ট হয়ে আসছে, তা এদিনের দলবদলের ঘটনা থেকেই পরিষ্কার বলে মত ওয়াকিবহাল মহলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!