এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > তৃণমূলের মহিলা বাহিনী দিয়ে সকাল বেলাতেই মেরে রক্তাক্ত করে দেওয়া হল বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষকে

তৃণমূলের মহিলা বাহিনী দিয়ে সকাল বেলাতেই মেরে রক্তাক্ত করে দেওয়া হল বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষকে



শুরু হয়েছে ষষ্ঠ দফার ভোটগ্রহণ – আর সকাল থেকেই অশান্তির ছবি পশ্চিম মেদিনীপুরে। কেশপুর জুড়ে বিজেপি এজেন্টদের বুথে বুথে বসতে দেওয়া হচ্ছে না, সেখানে দেওয়া হয় নি কেন্দ্রীয় বাহিনীও। খবর পেয়ে নিজের এজেন্টকে বসাতে বুথে যান ভারতী ঘোষ।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

কিন্তু ভারতী ঘোষ বুথে পৌঁছাতেই তাঁকে ঘিরে ধরেন তৃণমূলের মহিলা বাহিনী। বুথের দিকে এগোতে গেলেই বিজেপি প্রার্থীকে ঘিরে ধরে রীতিমত ধাক্কাধাক্কি শুরু করে দেন তাঁরা। বুথে নেই কোনো কেন্দ্রীয় বাহিনী, রাজ্য পুলিশ কার্যত নীরব দর্শক।

ওই মহিলা তৃণমূল সমর্থকদের স্পষ্ট দাবি, বিজেপি প্রার্থীকে তাঁদের পছন্দ নয়, ওখানে তৃণমূল ছাড়া অন্য কোনো দল করা যাবে না। আর তাই না তাঁরা বিজেপি এজেন্টকে বসতে দেবেন, না ভারতী ঘোষকে ঢুকতে দেবেন। সংবাদমাধ্যমের সামনে তাঁরা স্পষ্ট জানিয়ে দেন তাঁরা তৃণমূল কর্মী।

এই ধাক্কাধাক্কির মধ্যেই ব্যারিকেড করে ভারতী ঘোষকে বুথে পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করেন তাঁর নিজস্ব কেন্দ্রীয় সুরক্ষা বাহিনী। কিন্তু তৃণমূলের মহিলা কর্মীরা এর মধ্যেই ভারতী ঘোষকে ঠেলে মাটিতে ফেলে দেন, উড়ে যায় তাঁর আঙুলের নখ। তৃণমূলের মহিলা বাহিনীর ‘কল্যানে’ সাত-সকালেই রক্তাক্ত গণতন্ত্র!

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!