এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > দিকে দিকে “বহিরাগত” বিজেপি প্রার্থীদের নামে পোস্টার, তৃনমূলের “ষড়যন্ত্র” দাবি গেরুয়া শিবিরের

দিকে দিকে “বহিরাগত” বিজেপি প্রার্থীদের নামে পোস্টার, তৃনমূলের “ষড়যন্ত্র” দাবি গেরুয়া শিবিরের



দেরি করে প্রার্থী ঘোষণা করার পর যখন ঐক্যবদ্ধ হয়ে জোর প্রচার চালানোর কথা রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল বিজেপির, ঠিক তখনই বিভিন্ন জায়গায় দলীয় প্রার্থীকে ঘিরে অসন্তোষ ও বিদ্রোহে প্রবল অস্বস্তিতে সেই গেরুয়া শিবির। প্রথমে কোচবিহারে সদ্য তৃণমূল থেকে বিজেপিতে আসা নিশীথ প্রামাণিককে প্রার্থী করলে সেখানে বিজেপির একাংশ প্রবল বিদ্রোহ দেখায়।

আর এরপর বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সায়ন্তন বসুর বিরুদ্ধেও প্রকাশ্যে বিজেপির একাংশকে পোস্টার দিতে দেখা যায়। যা নিয়ে উত্তাল হয়ে ওঠে রাজ্য রাজনীতি। আর এবার কোচবিহার ও বসিরহাটের পর বারাসাতের বিজেপি প্রার্থী ডাঃ মৃনাল দেবনাথের বিরুদ্ধে হাবরা স্টেশন চত্বরে বিজেপির একাংশ প্রার্থী হিসেবে সেই মৃনালবাবুকে না মানার কথা বলে পোস্টার সাঁটিয়ে দিল।

আর যে ঘটনা নিয়ে এখন তীব্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে এলাকায়। সূত্রের খবর, এদিন সকালে হাবরা স্টেশন চত্বরে বারাসাত লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী ডাক্তার মৃনাল দেবনাথের বিরুদ্ধে পড়া একটি পোস্টারে দেখা যায় সেখানে লেখা রয়েছে, “বারাসাত লোকসভাতে আমরা প্রদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কেই প্রার্থী চাই। বিজেপির দলীয় কর্মী না হলে ভোট এবার নোটাতে, ডাঃ মৃনাল দেবনাথ (পাগল) কে একটিও ভোট নয়।”

কিন্তু কে বা কারা এই পোস্টার সাঁটালো? জানা গেছে, এই পোষ্টারের নিচে জেলা বিজেপি সভাপতি “প্রদীপ ব্যানার্জি জিন্দাবাদ” বলেও লেখা রয়েছে। এদিকে জেলায় জেলায় দলের প্রার্থী নিয়ে এইভাবে প্রকাশ্যে অসন্তোষের ঘটনায় এবার তীব্র অস্বস্তিতে পড়তে শুরু করেছে বিজেপি। তবে হাবরা স্টেশনে প্রার্থী বদলের দাবি তুলে দলীয় প্রার্থী মৃণাল দেবনাথের বিরুদ্ধে যেভাবে পোস্টার পড়েছে তাতে কি দলের গোষ্ঠী কোন্দল ফুটে উঠছে না?


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে বিজেপির বারাসাত সাংগঠনিক জেলার সভাপতি প্রদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “প্রার্থী নিয়ে আমাদের কোনো ক্ষোভ নেই। ইতিমধ্যেই আমাদের সমস্ত কার্য কর্তারা প্রচারে নেমে পড়েছেন। আসলে তৃণমূল এখন ভয় পেয়ে পরিকল্পিতভাবে পোস্টারে নাম জড়িয়ে আমাদের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব আছে সেটা বোঝানোর চেষ্টা করছে। আমরা এই ব্যাপারে কাগজপত্র তৈরি করছি। শীঘ্রই নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ দায়ের করব।”

অন্যদিকে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলের তরফে অবশ্য এই সমস্ত ঘটনাকে অস্বীকার করা হয়েছে। এদিন এই প্রসঙ্গে উত্তর 24 পরগনা জেলা যুব তৃনমূলের কার্যকরী সভাপতি নীলিমেশ দাস বলেন, “গোটা রাজ্য জুড়েই বিজেপির প্রার্থী নিয়ে ক্ষোভ চলছে। তৃণমূলের নাম জড়িয়ে ওরা যতই শাক দিয়ে মাছ ঢাকার চেষ্টা করুক না কেন, এতে ওদের কোনো লাভ হবে না।”

সব মিলিয়ে এবার বিজেপি প্রার্থীর বিরুদ্ধে দলের একাংশ পোস্টার সেঁটে দেওয়ায় যখন গেরুয়া শিবিরের মধ্যে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের তত্ত্ব খাড়া করছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস, ঠিক তখনই এই গোটা ঘটনার পেছনে শাসক দলেরই হাত রয়েছে বলে পাল্টা সরব হয়ে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হচ্ছে বিরোধী দল বিজেপি।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!