এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বিজেপিকে হঠাতে এবার রাজ্যে রাজ্যে ঘুরে জনমত তৈরি করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

বিজেপিকে হঠাতে এবার রাজ্যে রাজ্যে ঘুরে জনমত তৈরি করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়



এদিন কুমারস্বামীর মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে বিজেপি বিরোধী জোটগঠনের কথা প্রকাশ্যে বলে এসেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কট্টর বিজেপিবিরোধীরা। ফলে তাদের সামনে এই প্রস্তাব রাখার যথেষ্ট কারণ ছিল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মনে করেন এটাই বিজেপি বিরোধী ফ্রন্ট গড়ার উপযুক্ত সময়। জানা গেছে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানের আগেরদিন অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু অতিথিনিবাসে নেত্রীর সঙ্গে দেখাও করতে যান। এছাড়াও নেত্রীর সঙ্গে কুমারস্বামী এবং দেবেগৌড়ারও বেশ অনেকক্ষণ বৈঠক হয়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর ধারণা বিরোধী দলগুলো একজোট হয়ে সমঝোতায় এলে তবেই বিরোধীকে পরাস্ত করা সম্ভব। আর গণতন্ত্রের জন্য সবার আগে প্রয়োজন জনমত তৈরি করা।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এদিন শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে মঞ্চে সকলের নজর ছিল নেত্রীর দিকে। মঞ্চে উপস্থিত  কংগ্রেসর তরফের রাহুল গান্ধী,সনিয়া গান্ধী,মায়বতীর সঙ্গে তাঁর আলাদা করে বৈঠক না হলে নেত্রী সৌজন্যবোধ প্রকাশ করেছেন তাঁদের উদ্দেশ্যে। তবে কংগ্রেস বিজেপি বিরোধী ফ্রন্টে যোগ দেবে কিনা তা এখনো প্রকাশ্যে আসেনি।  তবে জানা যাচ্ছে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত নেতৃবর্গের বেশীরভাগই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তাঁদের রাজ্যসভায় আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। কথা হয়েছে অখিলেশ যাদব এবং তেজস্বীর সঙ্গেও। তাঁরা সকলেই বিরোধী বিরোধী ফ্রন্ট তৈরিতে আগ্রহী। তাই কিভাবে এই ফ্রন্টকে আরো শক্তপোক্ত করা যায় সে ব্যাপারে ভাবনাচিন্তা করার প্রস্তাবও দিয়েছেন তিনি।

বিজেপি বিরোধী নেতারা মনে করেন যে ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনকে মাথায় রেখেই যত জলদি সম্ভব ফ্রন্ট তৈরির কাজ শুরু করে দিতে হবে। কারণ সম্ভবত পুজোর পরেই শুরু করতে হবে লোকসভা নির্বাচনী প্রচার। জানা গেছে, কুমারস্বামীর সঙ্গে সবিস্তারে বিজেপিবিরোধী জোট গঠন নিয়ে কথা বলে আসার পর কোলকাতায় ফিরে এদিন ফেসবুকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কুমারস্বামীকে মুখ্যমন্ত্রী পদগ্রহণের জন্য শুভেচ্ছা জানান।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!