এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বিজেপিকে চাপে ফেলে বড় পদক্ষেপ নিলো কংগ্রেস

বিজেপিকে চাপে ফেলে বড় পদক্ষেপ নিলো কংগ্রেস



কর্ণাটক রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনোত্তর সরকার গঠন প্রক্রিয়া সঠিক অর্থে অভিনব এবং নজিরবিহীন ও বটে। এই রাজ্যের বর্তমান পরিস্থিতি স্বাভাবিক ভাবেই দেশের বিভিন্ন রাজ্যের বিরোধী শিবিরকে এক নতুন আলোর সন্ধান দিয়েছে। একক বৃহত্তম দলের তত্ত্ব কাজে লাগিয়ে গোয়া, বিহার এবং মণিপুরে বিরোধীরা রাজ্যপালের সাথে সাক্ষাৎ করে সরকার গঠনের দাবি ও জানিয়েছেন। প্রসঙ্গত শুক্রবার গোয়ার প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি চিল্লা কুমার সহ-১৩ জন নেতা রাজ্যপাল মৃদুলা সিনহার সঙ্গে দেখা করে সরকার গড়ার দাবি জানিয়েছেন। শুধু তাই নয় তাঁরা যে সেখানে একক বৃহত্তম দল তা স্মারকলিপি দিয়ে রাজ্যপালকে অবগতও করেছেন। তাঁরা বলেছেন এক সপ্তাহ সময় পেলেই তাঁরা নিজেদের একক বৃহত্তম দল হিসেবে প্রমাণ করে দেবেন জানালেন। এই প্রসঙ্গে তাঁদের যুক্তি কর্ণাটক রাজ্যে যদি এমন সরকার গঠনের এই একক বৃহত্তম দল তত্ত্ব কার্যকর হয় তাহলে তাঁদের দাবিও যথেষ্টই সঙ্গত। কর্ণাটক রাজ্যে একক বৃহত্তম দল তত্ত্ব কাজে লাগিয়ে সরকার গঠন প্রসঙ্গে আরজেডি সুপ্রিমো তথ বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী লালুপ্রসাদ যাদব পুত্র প্রাক্তন উপ-মুখ্যমন্ত্রী তেজস্বী যাদব বললেন, ‘‌’কর্নাটকে সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পেয়েও যদি বিজেপি সরকার গড়তে পারে তাহলে আমরাও তা করতে পারি বিহারে। ” এই বিষয়ে নিজেদের দাবি পেশ করার জন্যে এদিন দুপুরে রাজ্যপাল সত্যপাল মালিকের সঙ্গে দেখা করেন আরজেডির বিধায়করা। এদিন বিহারের প্রাক্তন উপ মুখ্যমন্ত্রী আরও বিশদে বললেন, “কর্নাটক বিধানসভা নির্বাচনে ভোটের ফল ত্রিশঙ্কু। ২২৪ আসনের এই বিধানসভায় ভোটগ্রহণ হয়েছে ২২২টি আসনে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

তার মধ্যে ১০৪টি আসন পেয়ে বৃহত্তম দল হিসেবে উঠে এসেছে বিজেপি। কিন্তু ১১২টি আসনের ম্যাজিক ফিগার ছুঁতে পারেনি তারা। কংগ্রেস পেয়েছে ৭৮টি আসন। আর সরকার গড়ার পক্ষে যে দল সে রাজ্যে কিং মেকারের কাজ করবে বলে মনে করা হচ্ছিল সেই জেডি(এস) পেয়েছে ৩৮টি আসন। তাই আমাদের সুযোগ দেওয়া হলে আস্থাভোটে সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ করে দেবো। আমাদের ১১১টি বিধায়ক রয়েছেই। আর কিছু বিক্ষুব্ধ জেডি(‌ইউ)‌ বিধায়ক আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন। তাঁদের নিয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ করে দেওয়া যাবে। তাঁরা নীতীশ কুমারের মত ঘুরে যাবে না।’‌’ মণিপুর রাজ্যেও একক বৃহত্তমদল তত্ত্বের জেরে একই চিত্র দেখা গেলো। এদিন কংগ্রেসের পক্ষ থেকে রাজ্যপাল জগদীশ মুখীর কাছে স্মারকলিপি জমা দিয়ে সরকার গঠন করার দাবি জানানো হয়েছে। কারণ তারা সেখানে একক বৃহত্তম দল। রাজনৈতিক মহলের মতে কর্ণাটকের রাজ্যপাল বাজুভাই বালা ঐ রাজ্যে একক বৃহত্তম দল তত্ত্বের ভিত্তিতে সরকার গঠনে সহায়তা করে নিসন্দেহেই ভারতীয় রাজনীতিতে এক নতুন পথের দিশা দিলেন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!