এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > বিজেপি > বিতর্ক উড়িয়ে গেরুয়া ঐক্য প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে শুভেন্দুর সঙ্গে একাসনে বিজেপি সেনাপতি

বিতর্ক উড়িয়ে গেরুয়া ঐক্য প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে শুভেন্দুর সঙ্গে একাসনে বিজেপি সেনাপতি



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – তৃণমূলে তিনি যোগ্য সম্মান পাননি, এই অভিযোগ বিজেপিতে এসেই করতে শুরু করেছিলেন তৃণমূলের প্রাক্তন শীর্ষনেতা শুভেন্দু অধিকারী। কিন্তু পূর্বস্থলীতে একটি অনুষ্ঠানে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ যখন সিংহাসনে বসেছিলেন, তখন পাশের চেয়ারে বসেছিলেন সেই শুভেন্দু অধিকারী। যাকে নিয়ে তৃণমূল কড়া ভাষায় আক্রমণ করতে শুরু করেছিলেন। ছবিতে দেখা গিয়েছিল, দিলীপ ঘোষের পায়ের একটি জুতো শুভেন্দু অধিকারীর দিকে তাক করে রাখা। আর এই ঘটনাকে নিয়ে তৃণমূলের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, হ্যাঁ, উনি তৃণমূলে সম্মান পাননি।

এখন বিজেপিতে গিয়ে কতই না সম্মান পাচ্ছেন! স্বাভাবিকভাবেই তৃণমূল যখন এই রকম কটাক্ষ করতে শুরু করে, তখন অস্বস্তি বাড়তে শুরু করে ভারতীয় জনতা পার্টির। তাই পূর্বস্থলীতে যে ঘটনা ঘটেছিল, তাকে শুধরে নিয়ে গেরুয়া ঐক্য প্রতিষ্ঠা করার জন্য পাশাপাশি চেয়ারে বসতে দেখা গেল রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ এবং সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া শুভেন্দু অধিকারীকে।

সূত্রের খবর, রবিবার ঝাড়গ্রামের গোপীবল্লভপুরের বেলিবেড়িয়ায় একটি সভায় উপস্থিত হন দিলীপ ঘোষ এবং শুভেন্দু অধিকারী। আর সেখানেই পাশাপাশি চেয়ারে বসতে দেখা যায় তাদের। আর এই ঘটনা অতীতের তিক্ত অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নেওয়ার অন্যতম নজির বলেই মনে করছেন একাংশ। বিজেপিতে যোগ দিয়ে শুভেন্দু অধিকারী দিলীপ ঘোষের পায়ের তলায় বলে কটাক্ষ করতে শুরু করেছিল তৃণমূল কংগ্রেস।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

আর তাই সেই ঘটনা নিয়ে যাতে বেশি প্রচার না হয় এবং এর ফলে যাতে বিজেপির অন্দরে কোন্দল তৈরি না হয়, তার জন্য এবার পাশাপাশি চেয়ারে বসতে দেখা গেল দিলীপ ঘোষ এবং শুভেন্দু অধিকারীকে বলে মনে করছেন একাংশ। জানা গেছে, রবিবার, গোপীবল্লভপুরের সভায় শুভেন্দু অধিকারী এবং দিলীপ ঘোষ দুজনে তৃণমূলের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক বক্তব্য শানিয়েছেন। যা রাজ্য রাজনীতিতে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

তবে এত কিছুর মাঝেও সবথেকে বেশি নজর কেড়েছে পাশাপাশি চেয়ারে দিলীপ ঘোষ এবং শুভেন্দু অধিকারীর আসন গ্রহণ করা। একাংশ বলছেন, যদি এদিনেও দিলীপ ঘোষ সিংহাসনে বসতেন, তাহলে তা নিয়ে শুভেন্দু অধিকারীকে আবার ছোট করা শুরু করত তার প্রাক্তন দল তৃণমূল কংগ্রেস। যার ফলে শুভেন্দু অধিকারী হয়ত বা রুষ্ঠ হতে পারতেন। আর তাই দলের অন্দরে যাতে এই রকম কোনো ঘটনা না ঘটে এবং শুভেন্দু অধিকারীকে গুরুত্ব দিয়ে যাতে তৃণমূলের ঘর ভাঙ্গা যায়, তার জন্য এবার দিলীপ ঘোষ নিজেও চেয়ারে বসে গেরুয়া ঐক্য প্রতিষ্ঠা করার স্বপক্ষেই জোর দিলেন বলে মত বিশ্লেষকদের।

স্বাভাবিকভাবেই শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে যাতে দিলীপ ঘোষের ফাটল তৈরি না হয়, তার জন্যই পূর্বস্থলীর বিষয় ভোলাতে গোপীবল্লভপুর চেয়ার আঁকড়ে বসলেন দুই হেভিওয়েট নেতা। যা রাজ্য রাজনীতিতে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছেন বিশ্লেষকরা। সব মিলিয়ে গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!