এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > বিতর্ক থামাতে এবার পিকের কর্মসূচিতে হাজির অধিকারী পরিবার! জোর জল্পনা!

বিতর্ক থামাতে এবার পিকের কর্মসূচিতে হাজির অধিকারী পরিবার! জোর জল্পনা!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বিগত লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস রাজ্যে কিছুটা খারাপ ফলাফল করার পর অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় উদ্যোগ নিয়ে দলের রাজনৈতিক পরামর্শদাতা হিসেবে প্রশান্ত কিশোরকে নিয়ে আসেন। আর তারপর থেকেই একাধিক কর্মসূচি তৈরি করে দলকে জনসংযোগের রাস্তায় হাঁটতে বাধ্য করেন সেই প্রশান্ত কিশোর। “বাংলার গর্ব মমতা” থেকে শুরু করে “দিদিকে বলো” কর্মসূচি, প্রশান্ত কিশোরের পরিকল্পনামাফিক এই সমস্ত কর্মসূচিতে তৃণমূলের সর্বস্তরের নেতা, মন্ত্রী, বিধায়ক থেকে শুরু করে কর্মীসমর্থকরা ঝাঁপিয়ে পড়লেও ব্যতিক্রমী ভূমিকায় দেখা গেছে পূর্ব মেদিনীপুরের অধিকারী পরিবারকে।

শুভেন্দু অধিকারীর মত হেভিওয়েট নেতা তথা মন্ত্রী প্রশান্ত কিশোরের পরিকল্পনামাফিক কোনো কর্মসূচিতে উপস্থিত হননি। যার ফলে তৈরি হয়েছিল বিতর্ক। তাহলে কি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরামর্শমত প্রশান্ত কিশোর সংগঠনকে সাজাতে শুরু করেছেন, আর তার কারণেই তা মানতে না পেরে সেই সমস্ত কর্মসূচিতে অনুপস্থিত থেকে কার্যত বিদ্রোহীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হচ্ছেন শুভেন্দু অধিকারী!‌ তা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে তৈরি হয়েছিল প্রশ্ন।

সাম্প্রতিক কালে শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে নানা জল্পনা তৈরি হয়েছিল। তিনি বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন বলে নানা মহলে গুঞ্জন তৈরি হয়। আর এই পরিস্থিতিতে প্রশান্ত কিশোরের উদ্যোগে “ইয়ুথ ইন পলিটিক্স” কর্মসূচির অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে সেই বিতর্ককে দমানোর চেষ্টা করলেন পূর্ব মেদিনীপুর জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা সাংসদ এবং শুভেন্দু অধিকারীর পিতা শিশির অধিকারী। তবে শিশিরবাবু উপস্থিত থাকলেও, এদিনের এই অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত থাকতেই দেখা গেছে শুভেন্দু অধিকারীকে।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে যে পরিমাণ জল্পনা বাংলা জুড়ে শুরু হয়েছে, তাতে পরিস্থিতি বেগতিক হওয়ার যথেষ্ট আশঙ্কা রয়েছে। তাই এমতাবস্থায় পুত্র না থাকলেও জেলা সভাপতি তথা শুভেন্দু অধিকারীর পিতা নিজে উপস্থিত থেকে দলের সমস্ত কর্মসূচিকে যে তারা মান্যতা দিয়েই চলেন, তা প্রমাণ করার চেষ্টা করলেন বলেই মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

এদিন এই প্রসঙ্গে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা তৃণমূল সভাপতি শিশির অধিকারী বলেন, “কেন্দ্রীয় মন্ত্রী থাকার সময় থেকেই মমতাকে দেখে আসছি। তিনি দেশকে কোন দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চান, কি তার চিন্তাধারা, তা কাছ থেকে দেখেছি। তার মত একজনকে জাতীয় রাজনীতিতে অত্যন্ত দরকার। 2021 সাল নয়, আরও 30 বছর মমতা যদি বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হতেন, তবে এরকম দুর্দশা হত না। পিকের টিমের লোকেরা যেভাবে মানুষের মনের কথা বোঝার চেষ্টা করছে এবং সেসব কথা আমাদের জানাচ্ছে, তাতে আমরাও সেই মতো এগোতে পারছি।”

আর হঠাৎ করেই প্রশান্ত কিশোরের টিমের স্তুতি শিশির অধিকারীর মত নেতার গলায় শোনা যাওয়ায় এখন নয়া জল্পনা শুরু হয়েছে। একাংশ প্রায় নিশ্চিত যে, শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে জল্পনা চলায় কিছুটা হলেও বিপাকে পড়েছে অধিকারী পরিবার। আর তাই দলের মূল স্রোতের সঙ্গে তাল মিলিয়ে থাকতেই এদিন শিশির অধিকারী প্রশান্ত কিশোরের টিমের উদ্যোগে অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে তাদের প্রশংসা করতে বাধ্য হলেন। তবে শুভেন্দু অধিকারী সেই অনুষ্ঠানে না থাকায় জল্পনা কিছুটা হলেও বেড়েছে। সব মিলিয়ে গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!