এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > বিজেপি > বিতর্কিত মন্তব্যকে সমর্থন হেভিওয়েট বিজেপি নেতার, রাজ্য জুড়ে বিতর্কের ঝড়

বিতর্কিত মন্তব্যকে সমর্থন হেভিওয়েট বিজেপি নেতার, রাজ্য জুড়ে বিতর্কের ঝড়



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – রাজ্যের নির্বাচনী পরিপ্রেক্ষিতে একের পর এক বিতর্কিত মন্তব্য শোনা যাচ্ছে বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতার মুখে। তার মধ্যে অন্যতম আলোচনার বিষয়বস্তু হয়ে দাঁড়িয়েছে সম্প্রতি বিজেপি নেতার করা এনকাউন্টার মন্তব্য। আর এই নিয়েই শুরু হয়েছে তীব্র বিতর্ক রাজ্য রাজনীতিতে। অন্যদিকে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ এই বিতর্কিত মন্তব্যকে সমর্থন করে ওই বিজেপি নেতার পাশে দাঁড়িয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। এক্ষেত্রে বিজেপি সাংসদ মন্তব্য করেছেন, এরাজ্যে দেশদ্রোহীদের লালন পালন করা হয়। সিএএ বিরোধী আন্দোলনে 500 কোটি টাকার সম্পত্তি নষ্ট হয়ে গেলেও কারও বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

নানুরের বিজেপি প্রার্থী তারক সাহা। আর এই তারক সাহার ভাই হলেন ধ্রুব সাহা তথা বীরভূম জেলার বিজেপি সভাপতি। বিজেপি নেতা ধ্রুব সাহা ভাইয়ের হয়ে নানুরে প্রচারে বেরিয়ে বলেছিলেন, ভারতে থেকে যদি কেউ পাকিস্তান তৈরির কথা বলে তাহলে এনকাউন্টার করা হবে। ভারতে থেকে ভারতের বিরোধিতা করলে এনকাউন্টার ছাড়া আর কোনো রাস্তা নেই। সমর্থন জানিয়েছেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি পাল্টা দাবি করেছেন, পশ্চিমবঙ্গে এনকাউন্টার নতুন কিছু নয়। বহু মানুষ মারা গেছেন। তবে কে কিভাবে এনকাউন্টার করবে, সেটাই দেখার। এ রাজ্যে সিএএ এর বিরোধিতা 500 কোটি টাকার সম্পত্তি নষ্ট হয়েছে বলে দাবি করেছেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

আর তাই তাদের দলের কর্মীরা কষ্ট পেয়ে এনকাউন্টারের কথা বলেছেন। এই নানুরেই এর আগে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন তৃণমূল নেতা শেখ আলম। তিনি দাবি করেন, রাজ্যে যত মুসলিম আছে তাঁদেরকে নিয়ে চারটে পাকিস্তান হয়ে যাবে। এই নিয়ে রাজ্যজুড়ে বিতর্কের ঝড় ওঠে। যদিও এই তৃণমূল নেতা তাঁর মন্তব্যের জন্য পরবর্তীতে ক্ষমা চেয়ে নেন বলে জানা গিয়েছে। আগামী 7 তারিখ রাজ্যজুড়ে তৃতীয় দফার নির্বাচন আর তার আগেই দিলীপ ঘোষ জানিয়ে দিলেন ভবিষ্যৎ। তিনি বলেছেন, বিজেপি শুধুমাত্র খেলছে বাকিরা মাঠের বাইরে বেরিয়ে গেছে।

পশ্চিমবঙ্গের মানুষ ঠিক করে নিয়েছে, কাকে এবার রাজ্যে ক্ষমতায় আনবে। দিলীপ ঘোষ দাবি করেছেন, তৃতীয় দফায় ডায়মন্ড হারবারে ইতিমধ্যেই মানুষ ঠিক করে নিয়েছেন কাকে ভোট দেবেন। সব মিলিয়ে ভোটের আগে রাজনৈতিক নেতাদের বিতর্কিত মন্তব্য ঘিরে ব্যাপক জল্পনা শুরু হয়েছে। তবে বিশেষজ্ঞদের মতে বিজেপির তরফ থেকে এনকাউন্টার মন্তব্য রাজ্যজুড়ে মানুষের মনে বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি করতে পারে। এনআরসি নিয়ে এর আগে রাজ্য জুড়ে তীব্র বিতর্ক শুরু হয়েছে। আপাতত নজর সবার তৃতীয় দফার নির্বাচনের দিকে।

 

আপনার মতামত জানান -

ট্যাগড
Top
error: Content is protected !!