এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > বিশৃঙ্খলা সামাল দিতে গিয়ে তৃণমূল কর্মীদের আক্রমণের মুখে স্বয়ং রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী

বিশৃঙ্খলা সামাল দিতে গিয়ে তৃণমূল কর্মীদের আক্রমণের মুখে স্বয়ং রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – দলীয় বিশৃঙ্খলা সামাল দিতে গিয়ে এবার পাল্টা কর্মীদের আক্রমণের মুখে পড়লেন রাজ্যের শাসকদলের মন্ত্রী। খুব স্বাভাবিকভাবেই এই ঘটনা নিয়ে ইতিমধ্যেই রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে তীব্র চাঞ্চল্য। প্রসঙ্গত, বিগত বেশ কিছুদিন ধরেই কেন্দ্রের কৃষি আইনের বিরোধিতায় রাজ্যজুড়ে শুরু হয়েছে শাসকদলের বিভিন্ন কর্মসূচি। এদিন ঐরকমই কর্মসূচি চলছিল পূর্ব বর্ধমানের গলসিতে। সেখানে তৃণমূল নেতা এবং গ্রন্থাগার মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরীর নেতৃত্বে জমিয়তে উলামায়ে হিন্দ কর্মসূচি শুরু করে।

কিন্তু ক্রমশ কর্মসূচি জুড়ে শুরু হয় বিশৃঙ্খলা। আর তাই সামাল দিতে আসরে নামেন স্বয়ং মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী। কিন্তু মন্ত্রী রাস্তায় নেমেই বুঝতে পারেন অবরোধকারীরা কিন্তু বিশৃংখল বন্ধ করতে মোটেই রাজি নন বরং মন্ত্রী বাধা দিতে যাওয়ায় তাঁকেই উল্টে ধেয়ে যায় অবরোধকারীরা এবং সর্মথকরা। খুব স্বাভাবিকভাবেই এই ঘটনায় অত্যন্ত অস্বস্তির মুখে রাজ্য তৃণমূল কংগ্রেস। প্রসঙ্গত, কেন্দ্রীয় কৃষি আইনের বিরুদ্ধে আজ বর্ধমানের গলসিতে অবরোধ শুরু হয়।


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

বিক্ষোভকারীরা অবরোধ শুরু করে বসে যান জাতীয় সড়ক অবরোধে। শুরু হয় ব্যাপক গন্ডগোল। বিক্ষোভ কর্মসূচির মধ্যেই মাইক নিয়ে বারবার মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী ঘোষণা করতে শুরু করেন আইন যাতে কেউ না ভাঙেন। কিন্তু কার্যক্ষেত্রে দেখা যায়, মন্ত্রীর কথাকে কেউ গুরুত্ব দিচ্ছেন না। ঠিক সেসময় মন্ত্রী নিজেই রাস্তায় নেমে পড়েন অবরোধ তুলতে আর তখনই জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের সমর্থক এবং তৃণমূল কর্মীদের আক্রমণের মুখে পড়েন তিনি।

যথারীতি পরিস্থিতি সামাল দিতে না পেরে সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী রণে ভঙ্গ দেন এবং গাড়িতে উঠে বসেন। এই ঘটনার পর থেকে বিরোধীদের তীব্র কটাক্ষের মুখে পড়েছে রাজ্যের শাসক দল। অন্যদিকে তৃণমূল শিবিরেও চূড়ান্ত অস্বস্তি। রাজনৈতিক মহলের অনেকেই মনে করছেন, একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে এই ঘটনা যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ। মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী অবশ্য এই ঘটনা নিয়ে এখনো পর্যন্ত কোনো প্রতিক্রিয়া জানাননি। আপাতত দলের অস্বস্তি কাটাতে কী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়, সেদিকেই এখন নজর রাখছে রাজ্যের ওয়াকিবহাল মহল।

 

আপনার মতামত জানান -

ট্যাগড
Top
error: Content is protected !!