এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > বিসর্জনের রাতে বাড়ির সামনেই দুষ্কৃতীদের নৃশংসভাবে গুলিতে লুটিয়ে পরে মৃত্যু বিজেপি কর্মীর!

বিসর্জনের রাতে বাড়ির সামনেই দুষ্কৃতীদের নৃশংসভাবে গুলিতে লুটিয়ে পরে মৃত্যু বিজেপি কর্মীর!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – রাজ্যজুড়ে একের পর এক বিজেপি কর্মীর হত্যার ঘটনায় উত্তাল হয়ে উঠেছে বাংলার রাজনৈতিক মহল। একুশের বিধানসভা যত এগিয়ে আসছে, ততই রাজনৈতিক হত্যার পরিমাণ বাড়ছে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে দশমীর রাতে যে ঘটনা ঘটে গেল কোচবিহারে, সেখানে রাজনৈতিক কারণে হত্যা হয়েছে নাকি এর পেছনে অন্য কোনো কারণ রয়েছে তা অবশ্য এখনও পর্যন্ত স্পষ্ট হয়ে ওঠেনি। যদিও ইতিমধ্যে গেরুয়া শিবির দাবি করেছে, এই ঘটনার পেছনে তৃণমূলের ষড়যন্ত্র রয়েছে এবং তাঁরাই এই হত্যা করেছে।

তবে এই অভিযোগের সাপেক্ষে পর্যাপ্ত কোন প্রমাণ দেখাতে পারেনি গেরুয়া শিবির। ঘটনার সূত্রপাত দশমীর রাতে, কোচবিহারে। বাড়ির সামনে গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হল আচমকাই এক বিজেপি সমর্থকের। ইতিমধ্যেই পুলিশ এসে মৃতের দেহ ময়না তদন্তের পাঠিয়েছে বলে জানা গেছে। তবে কি কারণে হত্যা, তা নিয়ে অবশ্য পুলিশও এখনো কোনো কূল-কিনারা করে উঠতে পারেনি। জানা গিয়েছে, ওই বিজেপি সমর্থকের নাম হলো রুহিদাস বিশ্বাস। কোচবিহারের সিতাই এর ব্রহ্মচাত্রা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার বাসিন্দা তিনি।

তাঁর বাড়িতে দুর্গাপূজা হয় প্রতিবছর। এবছরও একইভাবে পূজোয় মেতে উথেছিলেন তিনি এবং তাঁর পরিবার। স্বাভাবিকভাবেই দশমীর দিন পুজোর অনুষ্ঠানে ব্যস্ত ছিলেন তিনি। রাতে বাড়ির সামনেই বসে ছিলেন রুহিদাস। সে সময় আচমকা কেউ বা কারা তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি করেন। রক্তাক্ত হয়ে লুটিয়ে পড়েন তিনি পথমধ্যে। বাড়ির লোকের নজরে পড়া মাত্রই তাঁকে দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে তড়িঘড়ি নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু ততক্ষণে সবশেষ। চিকিৎসকরা রুহিদাস বিশ্বাসকে দেখেই বলে দেন তিনি ততক্ষণে মারা গিয়েছেন।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

তবে সাতেপাঁচে না থাকা বিজেপি সমর্থককে বাড়ির সামনে কে গুলি করে গেল, তা অবশ্য বাড়ির লোকেরা বলতে পারছেন না। শুধু তাঁরা জানিয়েছেন, আচমকাই রুহিদাস বিশ্বাসকে রক্তাক্ত অবস্থায় লুটিয়ে পড়ে থাকতে দেখা গিয়েছে। তবে কি কারণে ওই ব্যক্তিকে হত্যা করা হলো, তা নিয়ে অবশ্য রয়েছে সংশয়। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই উঠে আসছে রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের কারণে হত্যার তত্ত্ব। রুহিদাসের হত্যা নিয়ে ইতিমধ্যেই এলাকায় রয়েছে তীব্র চাঞ্চল্য। পুলিশ এসে এ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

কিন্তু এখনো পর্যন্ত পুলিশের হাতে এমন কোন সূত্র আসেনি বলে জানা গেছে, যেখান থেকে বিসর্জনের রাতে রুহিদাস বিশ্বাসের হত্যার পেছনে কে বা কারা জড়িত রয়েছে তা প্রমাণিত হবে। পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে তদন্ত চলছে এবং খুব শীঘ্রই দুষ্কৃতীরা ধরা পড়বে। অন্যদিকে একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে এভাবে গেরুয়া সমর্থকের হত্যায় গেরুয়া শিবিরে শুরু হয়েছে জোরদার চাঞ্চল্য। আপাতত ঘটনার মোড় কোন দিকে নেয়, সে দিকে লক্ষ্য রাখবে ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -

ট্যাগড
Top
error: Content is protected !!