এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > দুদিনের বঙ্গ-সফরেই অনুব্রত মন্ডলের ঘুম ওড়াবেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ

দুদিনের বঙ্গ-সফরেই অনুব্রত মন্ডলের ঘুম ওড়াবেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ



পঞ্চায়েতে বাংলায় গেরুয়া শিবিরের স্পষ্ট উত্থানের ইঙ্গিত পেতেই এখানকার কঠিন মাটিতে পদ্ম-ফোটাতে মরিয়া বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। অনেক টালবাহানার পর অবশেষে তাই ‘মিশন-বাংলা’ সফল করতে এই মাসের শেষের দিকে ২৭-২৮ জুন বাংলায় পা পড়ছে তাঁর। এতবড় রাজ্য – কিন্তু মাত্র দুদিনের সফরসূচি, তাই তাঁর ঠাসা কর্মসূচি থাকছে এবারের বঙ্গ-সফরে। কিন্তু তার মাঝেই বিশেষ জায়গা করে নিচ্ছে অনুব্রত মন্ডলের ‘গড়’ বীরভূম জেলা। আগামী লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যের যে কটা আসন গেরুয়া শিবির ‘সম্ভাবনাময়’ বলে ধরে এগোতে চাইছে তারমধ্যে তালিকায় একদম উপরের দুটি আসনের নাম – বীরভূম ও বোলপুর। কেননা, বঙ্গ-বিজেপির কাছ থেকে যে রিপোর্ট তিনি পেয়েছেন তাতে দেখা যাচ্ছে অনুব্রত-গড়ে ভেতরে ভেতরে শাসকদলের সংগঠন অনেকটাই পলকা হয়ে গেছে, এখনই সেখানে বিজেপি কর্মীদের আটকাতে জোর-জবরদস্তির রাস্তায় নাকি হাটতে হচ্ছে অনুব্রত মন্ডলের অনুগামীদের।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর তাই সেই বীরভূমের মাটিতে যদি বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির আগমন ঘটে তাহলে আগামীদিনে শাসকদলে বড়সড় ভাঙন শুধু নাকি সময়ের অপেক্ষা। রাজ্যনেতাদের এহেন রিপোর্ট পেয়ে অমিত শাহও তাঁর বঙ্গ-সফরে বড়সড় জায়গা দিচ্ছেন বীরভূম জেলাকে। গেরুয়া শিবিরের খবর অনুযায়ী, আগামী ২৭ শে জুন রাজ্যে আসছেন অমিত শাহ – সেদিন তাঁর কর্মসূচি কলকাতার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে। তার পরের দিন ভোরবেলা হেলিকপ্টারে তিনি সরাসরি বীরভূমের তারাপীঠ মন্দিরে পৌঁছাবেন, সেখানে পুজো দিয়ে তিনি স্থানীয় এক বিজেপি কর্মীর বাড়িতে ভোজন সারবেন। এরপরে সেখানেই তাঁর সাংগঠনিক বৈঠকের পাশাপাশি জনসংযোগ করার কথা। স্বাভাবিকভাবেই গেরুয়া শিবিরের দাবি, এমনিতেই বীরভূমে বিজেপির পক্ষে হাওয়া অনুকূল। তার উপরে অমিত শাহের এহেন কর্মসূচির পর অনুব্রত গড়ে গেরুয়া ঝড় তোলা শুধু সময়ের অপেক্ষা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!